পঞ্চসার গ্রামে ধর্ষণের পর গৃহবধূকে গলাকেটে হত্যা

farida1মুন্সীগঞ্জ শহরের উপকন্ঠ পঞ্চসার এলাকায় ফরিদা বেগম (৪২) নামে এক গৃহবধূকে ধর্ষণের পর গলাকেটে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। সোমবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে পুলিশ বসতঘর থেকে তার লাশ উদ্ধার করেছে।

নিহত ফরিদা বেগম সদর উপজেলার পঞ্চসার গ্রামের মৃত বাবুল শেখের স্ত্রী। তার দুই ছেলে ও দুই মেয়ে রয়েছে বলে জানা গেছে।

মুক্তারপুর নৌ ফাঁড়ির উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. মোশারফ হোসেন জানান, রোববার দিনগত রাতের কোনো এক সময় সিঁধ কেটে দুর্বৃত্তরা ফরিদার ঘরে ঢোকে। পরে গণধর্ষণের পর ধারালো অস্ত্র দিয়ে গলাকেটে তাকে হত্যা করে লাশ ফেলে রেখে যায়।
farida
সোমবার সকালে ফরিদার সন্তানরা তার মায়ের গলাকাটা লাশ দেখে গ্রামবাসীকে জানায়। পরে গ্রামবাসী থানায় খবর দেয়।

খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে ফরিদার লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

প্রাথমিকভাবে পুলিশ ধারণা করছে, ফরিদা ধর্ষণকারীদের চিনে ফেলায় তাকে হত্যা করা হয়েছে।

গ্রামবাসী জানায়, ফরিদার স্বামী বাবুল শেখ দেড় বছর আগে মারা যান। এর পর থেকে সন্তানদের নিয়ে তিনি পঞ্চসার গ্রামের বাড়িতে বসবাস করছিলেন।

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর
=============

শয়নকক্ষ থেকে নারীর গলাকাটা লাশ উদ্ধার

ফরিদা বেগমের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

মুন্সীগঞ্জের পঞ্চসার ইউনিয়নের পঞ্চসার গ্রামে সোমবার শয়নকক্ষ থেকে ফরিদা বেগম (৪২) নামে এক নারীর গলাকাটা লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।শয়নকক্ষ থেকে নারীর গলাকাটা লাশ উদ্ধার

গলা কেটে হত্যা করার আগে ওই নারীকে ধর্ষণ করা হয়েছে বলে আলামত পেয়েছে পুলিশ।

মুক্তারপুর নৌ-ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই মোশারফ হোসেন জানান, রোববার রাতের যেকোনো সময় ঘরের সিঁধ কেটে ভেতরে প্রবেশ করে দুর্বৃত্তরা। পরে ধর্ষণ শেষে গলা কেটে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা ওই নারীর লাশ খাটের ওপর রেখে যায়।

নিহত ফরিদা বেগম প্রয়াত আবুল শেখের স্ত্রী। তার ২ মেয়ে ঢাকায় ও ২ ছেলে বিদেশে থাকে। পঞ্চসার গ্রামের বাড়িতে ওই নারী একাই থাকতেন।

সোমবার বেলা ১২টার দিকে ফরিদা বেগমের মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

সমকাল
=====

ধর্ষণের পর গৃহবধূকে গলা কেটে হত্যা

মুন্সীগঞ্জ শহরের পঞ্চসার এলাকায় ফরিদা বেগম (৪২) নামের এক গৃহবধূকে ধর্ষণের পর গলা কেটে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা।

সোমবার সকাল সাড়ে ৯টায় ওই গৃহবধূর বাড়ি থেকে তার মৃতদেহটি উদ্ধার করে পুলিশ।

মুক্তারপুর পুলিশ ফাঁড়ির উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. মোশারফ হোসেন দ্য রিপোর্টকে জানান, রবিবার গভীর রাতে পঞ্চসার এলাকায় ফরিদা বেগমের মাটির ঘরের সিঁধ কেটে ভেতরে প্রবেশ করে দুর্বৃত্তরা। এ সময় তারা ওই গৃহবধূকে ধর্ষণ করে গলা কেটে হত্যা করে পালিয়ে যায়।
farida1
তিনি জানান, সকালে ওই বাড়ির ঘর থেকে বিবস্ত্র অবস্থায় ফরিদা বেগমের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়। তার মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

নিহতের স্বামী দেড় বছর আগে মারা গেছেন। তার ২ ছেলে ও ২ মেয়ে রয়েছে। ফরিদা বেগম একাই বাড়িতে বসবাস করতেন। এ ঘটনায় সদর থানায় মামলার প্রক্রিয়া চলছে বলে জানান তিনি।
farida2
দ্য রিপোর্ট

==========
farida3
মুন্সীগঞ্জে ধর্ষণের পর গলা কেটে হত্যা

মুন্সীগঞ্জের শহরের উপকন্ঠ পঞ্চসার এলাকায় ফরিদা বেগম (৪২) নামে এক নারীকে ধর্ষণের পর গলা কেটে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা।

সদর থানা-পুলিশ সোমবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে ওই নারীর লাশ বিবস্ত্র অবস্থায় উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করেছে।

মুক্তারপুর পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ (এসআই) মো. মোশারফ হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, শহরের উপকন্ঠ পঞ্চসার এলাকায় রোববার দিবাগত গভীর রাতের কোনো এক সময় এ ঘটনা ঘটে। দুর্বৃত্তরা সিঁধ কেটে ঘরে প্রবেশ করে ফরিদা বেগমকে উপর্যুপুরি ধর্ষণের পর গলা কেটে হত্যা করে। পরে লাশ বিবস্ত্র অবস্থায় ঘরের মেঝেতে ফেলে রেখে চলে যায়।

তিনি আরো জানান, নিহতের স্বামী দেড় বছর আগে মারা গেছেন। তার দুই ছেলে ও দুই মেয়ে রয়েছে। নিহত ফরিদা বেগম একাই ঘরে বসবাস করতো। এ ঘটনায় সদর থানায় মামলার প্রক্রিয়া চলছে।

শীর্ষ নিউজ