বালু উত্তোলণের ফলে নৌ-দুর্ঘটনা বৃদ্ধি নিয়ে আলোচনা

mirkadimMeetingLawমুন্সিগঞ্জে জেলা আইন শৃঙ্খলা কমিটির সভা
মুন্সিগঞ্জে মেঘনায় গত ১৫ মে লঞ্চডুবির ঘটনায় উদ্ধারকাজে ধীরগতী, বালুমহালের কারণে নদীর নির্বিচারে বালুকাটার কারণে নদীর গতীপথ পরিবর্তণ ও যার কারণে নৌদূর্ঘটনা বৃদ্ধি, মিরকাদিমের ৪ খাল পুন:খনন করে হাইকোর্টে আদেশ বাস্তবায়ণ, কাঠপট্রি-তালতলা খাল খনন, মুন্সিগঞ্জ-নারায়নগঞ্জ রেললাইন স্থাপন, বিআরটিসি বাস সার্ভিস চালু এবং সর্বোপরি সিমেন্ট কারখানার কারণে পরিবেশের ব্যাপক দূষণ নিয়ে মুন্সিগঞ্জে জেলা আইন শৃঙ্খলা রক্ষা কমিটির সভায় গতকাল সোমবার বিস্তারিত আলোচনা হয়।

গতকাল বেলা সাড়ে ১১ টায় আইন শৃঙ্খলা কমিটির সভাটি মুন্সিগঞ্জের মিরকাদিম পৌরসভায় অনুষ্ঠিত হয়। সভার শুরুতে জেলা জাতীয় পার্টির সাধারণ কুতুবুদ্দিন আহমেদ বলেন, কাঠপট্রি- তালতলা খাল নিয়ে প্রথম আলোতে সচিত্র প্রতিবেদন প্রকাশ হওয়ার পর থেকেই আমি খালটি খননের জন্য প্রতি সভায় বলে আসছি। আজও খালে ব্যাপারে জানতে চাই এই ব্যাপারে কোন উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে কিনা।
mirkadimMeetingLaw
সভায় প্রেসক্লাবের সভাপতি মীর নাসির উদ্দিন জানান, সিমেন্ট কারখানগুলো পরিবেশ দুষণ করছে। এ ব্যাপারে গত সভায়ও আলোচনা হয়েছে। কিন্তু কি প্রদক্ষেপ গ্রহন করা হয়েছে আমরা জানি না। টঙিবাড়ি উপজেলা চেয়ারম্যান কাজী ওয়াহিদ জানান, সভায় কার্যতালিকায় যেসকল বিষয়গুলো আসে। সেসকল বিষয়গুলো বাস্তবায়ন না হওয়া পর্যন্ত কার্যতালিকা থেকে বাদ না দেয়ার জন্য বলেন। সভায় মুন্সিগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক তানভীর হাসান লঞ্চ দুর্ঘটনার বিষয়ে বিআইডব্লিউটিএ চেয়ারম্যার এর বরাত দিয়ে জানান, এই এলাকায় বালুকাটার কারণে পরিবেশের ব্যাপক ক্ষতি হচ্ছে। নদীর গতীপথ পরিবর্তণ হচ্ছে। এতে করে দুর্ঘটনাও ঘটছে বেশী। তানভীর হাসান আরও বলেন, গজারিয়ায় মেঘনায় লঞ্চডুবির ঘটনায় ৩০০ কোটি টাকা দিয়ে উদ্ধারকারী জাহাজ প্রত্যয় কেনার পরেও উদ্ধার তৎপরতায় ধীরগতীর কারণে স্বজনদের দুভোর্গের শিকার হতে হয়েছে। এতে করে এতো টাকা দিয়ে এই জাহাজ কেনার সুফল হতে জনগন বঞ্চিত হচ্ছে।

এছাড়াও মিরকাদিমের ৪ খাল পুণ: খনন ও জেলায় বিআরটিসি বাস সার্ভিস ও রেল লাইস স্থাপনের বিষয়ে সভায় প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক দাবী তুলে ধরেন। সদস্যদের এইসব দাবীর কথা শুনে সভায় স্থানীয় সাংসদ মৃণাল কান্তি দাস বলেন, লঞ্চ দুর্ঘটনায় উদ্ধারকাজ আরও কম সময়ের মধ্যে সম্পন্ন করার জন্য প্রত্যয়ের উদ্ধারকারীদের আরও দক্ষ হতে হবে। তবেই আমাদের এতো টাকা দিয়ে উদ্ধারকারী জাহাজ কেনা স্বার্থক হবে। সাংসদ বালুকাটার কারণে যদি নৌদুর্ঘটনা ঘটে থাকে তবে আমাদের এই নিয়ে ভাবতে হবে। এই ক্ষেত্রে যা যা করণীয় আমরা সেটা করবো। প্রয়োজনে বালুকাটা বন্ধ করতেও বাধ্য থাকিব। সভায় সাংসদ তাৎক্ষনিকভাবে বিআরটিসির উধর্বতন কতৃপক্ষের সঙ্গে আলোচনা মুন্সিগঞ্জ-ঢাকা রুটে ৪০টি বিআরটিসি প্রদানে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা আশ্বাস দেন।

ভারপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার জাকির হোসেন মজুমদার বলেন, লঞ্চ দুর্ঘটনায় উদ্ধার তৎপরতায় পুলিশ প্রশাসনের কোন গাফিলতি ছিল না। এটা আমরা নির্ধিদায় বলতে পারি। এই ক্ষেত্রে লঞ্চউদ্ধারে যারা দক্ষ তারা বিলম্ব করেছে। যে জন্য জনগন বিক্ষুব্ধ হয়েছে। যেখানে পুলিশ নিয়ন্ত্রণ না করলে বড় ধরণে ঘটনা ঘটতে পারতো।

কমিটির সভাপতি জেলা প্রশাসক সাইফুল হাসান বলেন, সভায় যেসব বিষয়গুলো আলোচনায় এসেছে আমরা এইসব বিষয় বাস্তবায়ন করা চেষ্টার ক্ষেত্রে সচেষ্ট থাকবো। বিশেষ করে কাঠপট্রি-তালতলা খাল খননের বিষয়টি উর্ধ্বতন কতৃপক্ষকে অবহিত করা হয়েছে। সভায় আরও বক্তব্য প্রদান করেন, মিরকাদিম পৌরসভার মেয়র শহীদুল ইসলাম, জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ লুৎফর রহমান, জেলা শিক্ষা অফিসার মো. শরিফুল ইসলাম, জেলা ঘাতক দালাল নির্মুল কমিটির সভাপতি জামাল হোসেন, জেলা আওয়ামীলীগের সভ-সভাপতি শাহআলম মল্লিক, সাংবাদিক শহীদ-ই-হাসান। উপস্থিত ছিলেন সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আনিসউজ্জামান, টঙিবাড়ি উপজেলা চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার কাজী ওয়াহিদ, সদর উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মেহেরুন নেসা, ৬ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাগনসহ কমিটির সদস্যবৃন্দ।

মুন্সিগঞ্জেরকাগজ