লঞ্চডুবিতে নিহতদের পরিবারপ্রতি ২০ হাজার টাকা

Miraz11মুন্সীগঞ্জে লঞ্চডুবিতে নিহতদের লাশ পরিবার-পরিজনের কাছে পাঠানোর জন্য ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের তহবিল থেকে মরদেহপ্রতি ২০ হাজার টাকা করে প্রদানের জন্য নির্দেশ দিয়েছেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণমন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া এমপি।

স্থানীয় জেলা প্রশাসককে মন্ত্রী এ নির্দেশ দেন বলে বৃহস্পতিবার রাতে মন্ত্রণালয়ের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।

ঘটনাস্থলে সার্বক্ষণিক উদ্ধার তৎপরতা চালানো ও মরদেহগুলো স্বজনদের কাছে যথাযথভাবে পাঠানোর ব্যবস্থা করার জন্য তিনি দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদফতরের কর্মকর্তাদের নির্দেশ দিয়েছেন।

মন্ত্রী লঞ্চডুবিতে হতাহতের ঘটনায় গভীর শোক ও সমবেদনা প্রকাশ করেছেন।
Miraz11
বৃহস্পতিবার বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে গজারিয়া উপজেলার দৌলতপুর গ্রাম সংলগ্ন মেঘনা নদীতে মর্মান্তিক এ লঞ্চডুবির ঘটনা ঘটে। সদরঘাট থেকে দুপুর একটার দিকে শরীয়তপুরের সুরেশ্বরের উদ্দেশে রওয়ানা হয় এমভি মিরাজ-৪ লঞ্চটি। পথে মুন্সীগঞ্জের গজারিয়া উপজেলার দৌলতপুর এলাকায় পৌঁছালে হঠাৎ ঝড়ের কবলে পড়ে। এতে মাত্র ৩ মিনিটের মধ্যে লঞ্চটি ডুবে যায়। লঞ্চটিতে ২০০ থেকে ২৫০ যাত্রী ছিলেন।

রাত সাড়ে ১১টা পর্যন্ত ১৩ জনের লাশ উদ্ধার হয়েছে। নিহতদের মধ্যে ৮ জনের পরিচয় পাওয়া গেছে। এর মধ্যে রয়েছেন- শরীয়তপুরের নড়িয়া উপজেলার পাঁচগাঁও গ্রামের জামাল হোসেন শিকদার (৫০), তার ছেলে আবিদ হোসেন শিকদার (২৮), টুম্পা বেগম (৩০), সেতারা বেগম (৫০) ও আরিফ (১১)।

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর