ডুবে যাওয়া লঞ্চের যাত্রী সংখ্যা জানে না প্রশাসন!

Miraz7মুন্সীগঞ্জের গজারিয়ার দৌলতপুরে মেঘনা নদীতে ডুবে যাওয়া লঞ্চে কতোজন যাত্রী ছিলেন এবং কতোজন নিখোঁজ রয়েছেন তা বলতে পারেনি প্রশাসন। লঞ্চ দুর্ঘটনায় হতাহতের প্রসঙ্গে মুন্সীগঞ্জের জেলা প্রশাসক সাইফুল হাসান বাদল বলেন, আমারা এখন পর্যন্ত নারী ও শিশুসহ ১৩ জনের লাশ উদ্ধার করেছি। শতাধিক যাত্রী সাঁতরিয়ে তীরে উঠতে সক্ষম হয়েছেন বলে বিভিন্ন সূত্রে জানতে পেরেছি। আর কতোজন যাত্রী ছিলেন এবং কতোজন যাত্রী এখনও নিখোঁজ রয়েছেন তা সঠিকভাবে বলা যাচ্ছে না। লঞ্চ উদ্ধারের পরই জানা যাবে নিখোঁজ যাত্রীর সংখ্যা।

সাইফুল হাসান বাদল জানান, ডুবে যাওয়া লঞ্চ উদ্ধারে বৃহস্পতিবার রাত ১১টার পর থেকে উদ্ধার তৎপরতার মূল কাজ শুরু করেছে বিআইডব্লিউটিএ, নৌ-বাহিনী, ফায়ার সার্ভিস ও পুলিশ। এর আগে উদ্ধার তৎপরতার প্রাথমিক অংশ হিসেবে ডুবে যাওয়া লঞ্চটির অবস্থান শনাক্ত করেন তারা। আগামী দুই থেকে তিন ঘণ্টার মধ্যে লঞ্চটি উদ্ধার করা সম্ভব হবে।
Miraz9
তিনি আরও জানান, ডুবে যাওয়া লঞ্চটি শনাক্ত করার পর উদ্ধার তৎপরতা শুরু করা হয়েছে। আমরা আশা করছি, আগামী দুই থেকে তিন ঘণ্টার মধ্যে ডুবে যাওয়া লঞ্চটি উদ্ধার করা সম্ভব হবে।

এদিকে উদ্ধার তৎপরতা তদারকি করতে সন্ধ্যার পর থেকে দুর্ঘটনাস্থলে রয়েছেন নৌ-পরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খান, মুন্সীগঞ্জ-৩ আসনের সংসদ সদস্য ও কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের উপ-দফতর সম্পাদক অ্যাডভোকেট মৃণাল কান্তি দাস এমপি, শরীয়তপুরের এমপি সাবেক ডেপুটি স্পিকার কর্নেল (অব.) মীর শওকত আলী এমপি, বিআইডব্লিউটিএ’র চেয়ারম্যান ড. সামছুদ্দোহা খন্দকার, পুলিশের ঢাকা রেঞ্জের এডিশনাল ডিআইজি (ক্রাইম) শফিকুল ইসলাম প্রমুখ।
Miraz8
বৃহস্পতিবার বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে গজারিয়া উপজেলার দৌলতপুর গ্রাম সংলগ্ন মেঘনা নদীতে মর্মান্তিক এ লঞ্চডুবির ঘটনা ঘটে। সদরঘাট থেকে দুপুর একটার দিকে শরীয়তপুরের সুরেশ্বরের উদ্দেশে রওনা হয় এমভি মিরাজ-৪ লঞ্চটি। পথে মুন্সীগঞ্জের গজারিয়া উপজেলার দৌলতপুর এলাকায় পৌঁছালে হঠাৎ ঝড়ের কবলে পড়ে। এতে মাত্র ৩ মিনিটের মধ্যে লঞ্চটি ডুবে যায়। লঞ্চটিতে ২০০ থেকে ২৫০ জন যাত্রী ছিলেন।

এ পর্যন্ত ১৩ জনের লাশ উদ্ধার হয়েছে। নিহতদের মধ্যে ৮ জনের পরিচয় শনাক্ত করে লাশ স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। তাদের মধ্যে রয়েছেন- শরীয়তপুরের নড়িয়া উপজেলার পাঁচগাঁও গ্রামের জামাল হোসেন শিকদার (৫০), তার ছেলে আবিদ হোসেন শিকদার (২৮), টুম্পা বেগম (৩০), সেতারা বেগম (৫০) ও আরিফ (১১)।
Miraz7
জীবিত উদ্ধারকৃত হয়েছেন ৩৫ জন। তাদের মধ্যে এ পর্যন্ত ৮ জনকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে পাঠানো হয়েছে। এছাড়াও কয়েকজনকে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর