উদ্ধার তৎপরতা ঝিমিয়ে, মন্ত্রী-কর্মকর্তারা ঘুমিয়ে

Miraz121মুন্সীগঞ্জের ঘটনাস্থল থেকে: বৃহস্পতিবার দিনগত রাত যত গভীর হচ্ছে মুন্সীগঞ্জের মেঘনা নদীতে লাশের সংখ্যা একের পর এক বৃদ্ধি পাচ্ছে। দিনগত রাত ৩টা পর্যন্ত উদ্ধার হয়েছে হতভাগ্য ২১ যাত্রীর লাশ। নৌ-বাহিনী, বিআইডব্লিউটিএ, ফায়ার সার্ভিস ও পুলিশ যৌথভাবে উদ্ধার তৎপরতা অব্যাহত রেখেছে।

তবে বৃহস্পতিবার বিকেল ৩টায় ডুবে যাওয়া লঞ্চটি দিনগত রাত ৩টা পর্যন্ত ১২ ঘণ্টা অতিবাহিত হলেও এমভি মিরাজ-৪ লঞ্চটি উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি। লঞ্চটি এখনও মেঘনা নদীর তলদেশে রয়েছে।

উদ্ধারকারীরা জানান, যে স্থানটিতে লঞ্চটি ডুবেছে, সেই স্থানটির গভীরতা অনেক। প্রথম দিকে ৫০ ফুট ধারণা করলেও জোয়ারে পানি বৃদ্ধির ফলে তা এখন ৯০ ফুট গভীরতায় দাঁড়িয়েছে। এ কারণে কয়েক ঘণ্টা ধরে অনবরত উদ্ধার তৎরপতা চললেও সফলতার মুখ দেখা যায়নি।

অপরদিকে উদ্ধার তৎপরতায় ঘটনাস্থলে তদারকি করতে আসা নৌ-পরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খান ও বিআইডব্লিউটিএ’র চেয়ারম্যান ড. সামছুজ্জোহা খন্দকার উদ্ধারকারী জাহাজ ‘প্রত্যয়’ এর দ্বিতীয় তলার রুমে বিশ্রামে গিয়ে ঘুমিয়ে পড়েছেন।

মুন্সীগঞ্জ-৩ আসনের সরকার দলীয় এমপি অ্যাডভোকেট মৃণাল কান্তি দাস ও মুন্সীগঞ্জের জেলা প্রশাসক সাইফুল হাসান বাদলও বিশ্রামে রয়েছেন।
Miraz120

Miraz121

Miraz122
এ অবস্থায় রাত যতো গভীর হচ্ছে, উদ্ধার তৎপরতা ততো ঝিমিয়ে পড়েছে বলে উপস্থিত গণমাধ্যম কর্মী ও নিখোঁজ যাত্রীদের স্বজনেরা অভিযোগে জানিয়েছেন।

শুক্রবার ভোর সকালে অথবা দিনে ছাড়া ডুবে যাওয়া লঞ্চটি উদ্ধার করা সম্ভব হবে না বলে পুলিশের একাধিক সূত্র মনে করছেন।

বৃহস্পতিবার বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে গজারিয়া উপজেলার দৌলতপুর গ্রাম সংলগ্ন মেঘনা নদীতে মর্মান্তিক এ লঞ্চডুবির ঘটনা ঘটে। সদরঘাট থেকে দুপুর একটার দিকে শরীয়তপুরের সুরেশ্বরের উদ্দেশে রওনা হয় এমভি মিরাজ-৪ লঞ্চটি। পথে মুন্সীগঞ্জের গজারিয়া উপজেলার দৌলতপুর এলাকায় পৌঁছালে হঠাৎ ঝড়ের কবলে পড়ে। এতে মাত্র ৩ মিনিটের মধ্যে লঞ্চটি ডুবে যায়। লঞ্চটিতে ২০০ থেকে ২৫০ জন যাত্রী ছিলেন।

এ পর্যন্ত ২১ জনের লাশ উদ্ধার হয়েছে। নিহতদের মধ্যে ১৮ জনের পরিচয় শনাক্ত করে লাশ স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। তাদের মধ্যে রয়েছেন- শরীয়তপুরের নড়িয়া উপজেলার পাঁচগাঁও গ্রামের জামাল হোসেন শিকদার (৫০), তার ছেলে আবিদ হোসেন শিকদার (২৮), টুম্পা বেগম (৩০), সেতারা বেগম (৫০) ও আরিফ (১১)।

জীবিত উদ্ধার হয়েছেন ৩৫ জন। তাদের মধ্যে এ পর্যন্ত ৮ জনকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। এছাড়াও কয়েকজনকে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর