সরকারপাড়ায় গৃহবধূকে পিটিয়ে ও শ্বাসরোধ করে হত্যা

Murder4মুন্সীগঞ্জ সদরের দয়ালবাজার সরকারপাড়া গ্রামে হাসিনা ব্গেম (৩০) নামে এক গৃহবধূকে পিটিয়ে ও শ্বাসরোধ করে হত্যা করেছে স্বামী ও শ্বশুর বাড়ির লোকজন। বুধবার বেলা ৩টার দিকে আহত অবস্থায় ওই গৃহবধূকে মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। এ সময় লাশ ফেলে পালিয়ে যায় স্বামী ও শ্বশুর বাড়ির লোকজন।

এ ঘটনায় হাসপাতালে ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়। খবর পেয়ে হাসপাতাল থেকে গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করেছে মুন্সীগঞ্জ থানা পুলিশ। ঘটনার পর থেকেই স্বামী শিপন ও তার পরিবারের সদস্যরা পলাতক।

মুন্সীগঞ্জ সদর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) তাহের জানান, গৃহবধূর মৃত্যুর পর স্বামী ও শ্বশুর বাড়ির লোকজন পালিয়ে গেছে। তারা এভাবে পালিয়ে যাওয়ায় এটিকে হত্যাকাণ্ড বলে সন্দেহ করা হচ্ছে।

লাশটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। গৃহবধূর স্বজনরা মামলা দায়ের করার প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, ৬ বছর আগে সদর উপজেলার দয়ালবাজার সরদারপাড়া গ্রামের নুর সরদারের ছেলে শিপনের সঙ্গে টঙ্গীবাড়ীর বান্ধুনীপাড়া গ্রামের হামিদ মাঝির মেয়ে হাসিনার বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে স্বামী শিপন যৌতুকের জন্য স্ত্রীকে নির্যাতন শুরু করেন।

এক পর্যায়ে নির্যাতন সহ্য করতে না পেরে স্বামীর বিরুদ্ধে নারী নির্যাতন আইনে মামলা করেন স্ত্রী। পরে সামাজিকভাবে সালিশ বৈঠকে বিষয়টির সুরাহা হয়।

গৃহবধূর স্বজনরা জানান, সালিশের পর শিপন আবারো যৌতুক হিসেবে ২ লাখ টাকা দাবি করে স্ত্রীকে মারধর করে বাপের বাড়ি পাঠিয়ে দেয়। পরবর্তী সময়ে দ্বিতীয় বিয়ে করলে প্রথম স্ত্রী হাসিনা বেগম মামলা দায়ের করেন। মামলায় এক মাস জেল খেটে ৩ দিন আগে জামিনে বের হন শিপন।

এরপর কৌশলে হাসিনাকে এদিন নিজ বাড়িতে ডেকে নিয়ে যায় শিপন। এ সময় তর্কাতর্কির এক পর্যায়ে স্বামী ও শ্বশুর বাড়ির লোকজন তাকে পিটিয়ে ও শ্বাসরোধ করে হত্যা করে।

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর

====================

মুন্সীগঞ্জে গৃহবধূকে শ্বাসরোধ করে হত্যা

মুন্সীগঞ্জে হাসিনা বেগম (৩০) নামে এক গৃহবধূকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করেছে পাষ- স্বামী। বুধবার সন্ধ্যায় সদর উপজেলার দয়াল বাজার এলাকা এই ঘটনা ঘটে।

নিহত হাসিনা বেগম সদর উপজেলার দয়াল বাজারের শিপনের স্ত্রী।

স্থানীয়রা জানান, যৌতুকের জন্য প্রায়ই বউকে নির্যাতন করতেন স্বামী মো. শিপন। ২ লাখ টাকা যৌতুক না দেওয়ায় নিজ বসত-ঘরে গলা টিপে হত্যা করে গৃহবধূকে। এ ঘটনার পরই পালিয়ে যায় শিপন।

সদর থানার এসআই আবু তাহের ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, খবর পেয়ে পুলিশ গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করে। রাত সাড়ে ৮টার দিকে লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

শীর্ষ নিউজ

=================