টঙ্গীবাড়ীতে সহকারী নির্বাচন কর্মকর্তার হাতে মাদ্রাসার প্রধান শিক্ষক লঞ্চিত

ব.ম শামীম: ঘুস না দেওয়ায় টঙ্গীবাড়ী উপজেলা সহকারী নির্বাচন কর্মকর্তা বেলাল হোসেন এর হাতে কাইচমালধা ওয়াহেদ আলী হাওলাদার মহিলা মাদ্রাসার প্রধান শিক্ষক কাওসার হামিদ লাঞ্চিত হয়েছেন। কাওসার হামিদ জানান, তার জাতীয় পরিচয় পত্রে নামের বানান ভূল থাকায় বুধবার দুপুরে তা সংশোধনের জন্য সে টঙ্গীবাড়ী নির্বাচন কর্মকর্তার কার্যালয়ে যান।

এ সময় তাকে একটি ফরম পূরণ করতে দেওয়া হয়। ফরম পূরণ করার পর তার কাছে টাকা দাবী করে উক্ত সহকারী নির্বাচন কর্মকর্তা। সে কত টাকা লাগবে জিজ্ঞাসা করলে উক্ত কর্মকর্তা দু-আঙুল তুলে দেখায়। পরে সে দু-শত টাকা মনে করে একশত টাকার একটি নোট নির্বাচনী কর্মকর্তার হাতে দিয়ে আরেক শত টাকা পরে দিবে বলে জানালে ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে উক্ত কর্মকর্তা বলে দুই হাজার টাকা দিতে হবে। তার কাছে এতো টাকা নেই বলে জানালে তার হাত হতে ফরমটি কেড়ে নেয় উক্ত কর্মকর্তা। পরে মাদ্রাসা শিক্ষক ফরমটি ফেরত চাইলে তা নাদিয়ে তার চোখের সামনে টুকরো করে ছিড়ে ফেলে দেওয়া হয়।

এ ব্যাপারে বেলাল হোসেনের সাথে যোগাযোগ করা হলে সে জানায়, আমি কোন টাকা চাইনি। নাম সংশোধন এখানে নয় আগারগাঁও ইসলামিয়া হতে করতে হয়।