মিরাপাড়ার গৃহবধূ রত্নার আত্মহত্যা

suicide1মুন্সীগঞ্জের সদর উপজেলার সিপাহীপাড়ায় রত্না রানি দাশ (২৪) নামের এক গৃহবধূ আত্মহত্যা করেছেন। রবিবার দিবাগত রাত সাড়ে ৭ টা থেকে ৮ টার দিকে এ ঘটনা ঘটে থাকতে পারে বলে জানান স্বামী গণেশ চন্দ্র দে।

নারায়ণগঞ্জের নন্দীপাড়ার কালীপদ চন্দ্র দাশের মেয়ে রত্না রানি দাশের বিয়ে হয় মিরকাদিম পৌরসভার মিরাপাড়া গ্রামের গণেশ চন্দ্র দে সাথে। তারপর থেকে তাদের সুখী সংসার। স্বামী গণেশ সিপাহীপাড়া হাজী মনির মার্কেটে ঘড়ি মেরামতের দোকান এবং তার পাশেই ফারজানা প্লাজার পিছনেই চার তলায় ভাড়া থাকতেন।

নিহতের স্বামী গণেশ চন্দ্র দে জানায়, রাত ৯ টার দিকে ঘরে ফিরি এবং ছেলে ঈশান দরজা খুলে দেয়। ভিতরে ঢুকে দেখি রত্না জানালার সাথে কাপড় দিয়ে গলায় ফাঁস দিয়েছে। এরপর বটি দিয়ে কাপড় কেটে রত্নাকে বিছানায় নামিয়ে রেখে ছেলেকে নিয়ে ভয়ে পালিয়ে যাই।

নিহতের আত্মীয় স্বজন ক্ষোভ প্রকাশ করেন, রত্মাকে হাসপাতাল না নেওয়ার জন্য।

পরে রাত ১ টার দিকে স্বামী গণেশ ও ছেলে ঈশানকে নিয়ে ঘটনাস্থলে আসলে ঈশান জানায়, মা ঘরের জানালার সাথে কাপড় দিয়ে গলা পেচিয়ে দাঁড়িয়ে ছিলো। বাবা এলে আমি দরজা খুলে দেই। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য স্বামী গণেশকে থানা হেফাজতে রাখা হয়েছে বলে জানান তিনি।

হাতিমাড়া ফাঁড়ির ইনচার্জ এস.আই মনিরুজ্জামান জানান, রত্না কি কারণে আত্মহত্যা করেছে তা এখনো জানা যায়নি। রত্নার মরদেহ উদ্ধার করে জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা করা হয়েছে।

আজ সকালে লাশ নিয়ে আত্মীয় স্বজনরা ফিরে আসেন মিরাপাড়ায়, সবার উপস্থিতিতে লাশ সৎকারের কাজ চলছে স্থানীয় চিতাশালে।

মিরকাদিম ডট কম