অনন্ত আকাশ – ব.ম শামীম

তপ্ত দাহে পুড়ছে প্রকৃতি তারই আকূতি যেন আমার হৃদয় ভেদ করে।
কত দিন হয় অনুর কনাগুলো সিন্ধ হয়না প্রাকৃতির দানে।
রুদ্ধ কনাগুলো একবারে অবরুদ্ধ হয়ে উড়ে
তারপর সাদা পালকে উড়ে আসে মেঘ,

অনুর কম্পিত হৃদয় হতে তপ্ত ধূলোগুলো উড়ে উড়ে
আহবান জানায় দূর হতে দূরে ঘুরে ঘুরে,
একদিন আহবানের সাড়া দিয়ে দূর আকাশের মেঘগুলো
কম্পিত করে তুলে গগনের পরে উঠে ডেকে।
তারপর অঝর ধারায় বৃষ্টি আসে বর্ষনের সাধ মিলে স্পন্দন ধারায়
তারই প্রলোভন দেখে আমার ইচ্ছে হয় সাধ নিতে তোমার।
আজ কতদিন হয় খোলা জানালার পাশে দাড়িয়ে
কিশের অপূর্ণতা আমায় ভেদ করে।
কাকে যেন খুঁজে হৃদয় অনন্ত আকাশের অপার সীমানায়
হৃদয়ের রক্তক্ষরনগুলো স্পন্দের কোমলতা খুঁেজ,
চোখের সামনে ভেসে আসে সেই ধূসর হাত
আর আসে নিসর্গের বেদনার বহুরুপতার প্রেম
রৌদ্ধ যন্তনার তপ্ত দহন পুড়াতে জেগে থাকে অসিম আকাশে
তোমার ছন্দহীন ভালোবাসার অনন্তআকাশ।