রামপাল ইউনিয়ন পরিষদের পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনা বই প্রকাশ

দি হাঙ্গার প্রজেক্ট-এর কারিগরি সহায়তায়
ধলেশ্বরী নদীর কোল ঘেঁষে মুন্সীগঞ্জ শহর থেকে প্রায় ৭ কিলোমিটার এবং উপজেলা সদর থেকে মাত্র ৪/৫ কিলোমিটার দূরে রামপাল ইউনিয়নের অবস্থান। উত্তরে মিরকাদিম পৌরসভা, দক্ষিণে বজ্রযোগিনি ইউনিয়ন, পশ্চিমে আব্দুল্লাহপুর ইউনিয়ন এবং পূর্বে পঞ্চসার ইউনিয়ন।

স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করে একটি শক্তিশালী ও কার্যকর ইউনিয়ন পরিষদ গড়ে তোলার মাধ্যমে স্থানীয় উন্নয়ন ত্বরান্বিত করার লক্ষ্যে ২১ ফেব্রুয়ারি, ২০১২ দি হাঙ্গার প্রজেক্ট-বাংলাদেশ ও রামপাল ইউনিয়ন পরিষদের সাথে পাঁচ বছর মেয়াদি একটি সমঝোতা স্মারক সাক্ষরিত হয়। সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হওয়ার পর রামপাল ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচিত প্রতিনিধিদের নিয়ে বিশেষ উজ্জীবক প্রশিক্ষণ, স্থায়ী কমিটির সদস্যদের নিয়ে দিনব্যাপী কর্মশালা পরিচালনা করা হয়। উক্ত কর্মশালার সিদ্ধান্তসমূহের মধ্যে কার্যকর ওয়ার্ড সভা পরিচালনা, উন্মুক্ত বাজেট অধিবেশন ও পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনা গ্রহণ ছিল বিশেষভাবে গুরুত্বপূর্ণ।

উল্লিখিত কাজগুলোর মধ্যে পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনা বই তৈরি করার বিষয়টি গুরুত্বের সাথে সভায় বিবেচিত হয়। স্থানীয় পর্যায়ে সার্বিক উন্নয়নের উদ্দেশ্যে এলাকার খাতভিত্তিক সমস্যা চিহ্নিতকরণ, চাহিদা নিরূপণ ও সমস্যা সমাধানের নিমিত্তে উন্নয়ন পরিকল্পনা প্রণয়ন এবং পরিকল্পনা অনুযায়ী কার্যক্রম পরিচালনা এবং জনগণের মালিকানা সৃষ্টি করাই হচ্ছে পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনার উদ্দেশ্য। পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনা প্রণয়নের কাজটিকে অগ্রাধিকার দেয়ার পর পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনা প্রণয়ন কমিটি ও ইউনিয়ন পরিষদের সাথে দি হাঙ্গার প্রজেক্ট-এর এগারটি প্রস্তুতিমূলক সভা অনুষ্ঠিত হয়। পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনা বইয়ের জন্য তথ্য সংগ্রহ এবং কার্যকর ওয়ার্ডসভা পরিচালনা করার মাধ্যমে অগ্রাধিকার নির্ণয়ের বিষয়টি নিয়ে সভায় বিস্তারিত আলোচনা করা হয়।

নয়টি ওয়ার্ডে ওয়ার্ডসভা পরিচালনা করার মাধ্যমে ২৫৩টি কাজ অগ্রাধিকারের ভিত্তিতে চিহ্নিত করে উক্ত কাজসমূহকে পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনায় অন্তর্ভুক্ত করা হয়। এভাবে নয়টি ওয়ার্ডের সাধারণ মানুষের মতামতের আলোকে পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনার কাজসমূহের অগ্রাধিকার নির্ণয় করার পর অগ্রাধিকারভুক্ত কাজসমূহ কোনটি কোন বছর করা হবে তা নির্র্ধারণ করা হয়। এরই ভিত্তিতে রামপাল ইউনিয়ন পরিষদ ২০১৩-২০১৪ সালের প্রস্তাবিত বাজেট ষোষণা করে।

অতঃপর পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনা কমিটি তথ্যসমূহ যাচাই বাচাই করে পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনা বইয়ের জন্য চূড়ান্ত করে। ২০১৩ সালের নভেম্বর মাসে বইটি চুড়ান্ত করার পর ১ ডিসেম্বর, ২০১৩ এটি প্রকাশিত হয়। পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনায় সর্বমোট উন্নয়ন তহবিল (২০১৩-২০১৮) ব্যয়ের পরিকল্পনা ধরা হয় সাত কোটি উনত্রিশ লক্ষ আটান্ন হাজার চারশত পয়তাল্লিশ টাকা।

আগামী বছরগুলোতে রামপাল ইউনিয়ন পরিষদ পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনার আলোকে বাৎসরিক পরিকল্পনা সম্পাদন করবে। দি হাঙ্গার প্রজেক্ট-এর কারিগরি সহায়তায় প্রণীত এই জন-অংশগ্রহণমূলক পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনা মুন্সীগঞ্জ জেলার অন্যান্য ইউনিয়নের জন্য অনুসরণীয় ও অনুকরণীয় হতে পারে।

হাঙ্গার প্রজেক্ট