গজারিয়ার চেয়ারম্যান আ.লীগ বিদ্রোহীর দখলে

totaগজারিয়া উপজেলা নির্বাচনে ৪৫ কেন্দ্রের বেসরকরি ফলাফলে চেয়ারম্যান পদে বেসরকারীভাবে নির্বাচিত হয়েছেন আ.লীগ বিদ্রোহী প্রার্থী রেফায়েত উল্লাহ খান তোতা। তিনি দোয়াত-কলম প্রতীকে ২৮ হাজার ৬০৮ ভোট পেয়েছেন।

তার নিকটবর্তী প্রার্থী একই দলের আমিরুল ইসলাম মোটরসাইকেল প্রতীকে পেয়েছেন ১৬ হাজার ১০১ ভোট।

ভাইস চেয়ার ম্যান পদে বেসরকারীভাবে নির্বাচিত হয়েছেন বিএনপি সমর্থিত আসাদুজ্জামান জামান। তিনি পেয়েছেন ২৬ হাজার ৯১৮ ভোট। তার নিকটবর্তী প্রার্থী ইসহাক আলী পেয়েছেন ২৪ হাজার ৯৩২ ভোট।

মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে বেসরকারীভাবে নির্বাচিত হয়েছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী ফরিদা ইয়াছমিন। তিনি পেয়েছেন ৩২ হাজার ৩৪৭ ভোট। তার নিকটবর্তী প্রার্থী সুরাইয়া সরকার পেয়েছেন ২২ হাজার ৫৮৩ ভোট।।

বার্তা২৪

====================

গজারিয়ায় আ.লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী জয়ী

স্থগিত হওয়া ৯ কেন্দ্রের ভোট গ্রহণ শেষে মুন্সীগঞ্জের গজারিয়া উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে আ.লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী রেফায়েত উল্লাহ খান তোতা জয়ী হয়েছেন।

বুধবার রাত পৌনে ৮টার দিকে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে সভাকক্ষে স্থানীয় সাংবাদিকদের এ তথ্য জানিয়েছেন জেলা রিটার্নিং অফিসার সারওয়ার মোর্শেদ চৌধুরী।

সর্বমোট ৪৫ কেন্দ্রের ফলাফল অনুযায়ী আ.লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী রেফায়েত উল্লাহ খান তোতা পেয়েছেন ২৮ হাজার ৬’শ ৮ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আ.লীগের সমর্থিত প্রার্থী আমিরুল ইসলাম পেয়েছেন ১৬ হাজার ১’শ ১ ভোট।

এদিকে, ভাইস-চেয়ারম্যান পদে বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী আসাদুজ্জামান আসাদ ২৬ হাজার ৯’শ ১৮ ভোট এবং মহিলা ভাইস-চেয়ারম্যান পদে ৩২ হাজার ৩’শ ৪৭ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন বিএপির ফরিদা ইয়াসমিন।

গত ২৩ মার্চ গজারিয়া উপজেলা নির্বাচনে ব্যাপক সহিংসতার কারণে ৯টি কেন্দ্রের ভোট স্থগিত করে প্রশাসন। ৪৫টির মধ্যে বাকি ৩৬ ভোট কেন্দ্রে আ.লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী রেফায়েত উল্লাহ খান তোতা এগিয়ে ছিলেন ১১ হাজার ভোটে। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন আ’লীগের চেয়ারম্যান প্রার্থী আমিরুল ইসলাম।

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর
=============

গজারিয়ায় আ’লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী বিজয়ী

মুন্সীগঞ্জের গজারিয়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী রেফায়েত উল্লাহ খান তোতা (দোয়াত কলম) ২৮ হাজার ৬০৮ ভোটে পেয়ে বেসরকারিভাবে বিজয়ী হয়েছেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি আওয়ামী লীগের আমিরুল ইসলাম (মটর সাইকেল) পেয়েছেন ১৬ হাজার ১০১ ভোট। এছাড়া বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী আব্দুল মান্নান দেওয়ান মনা (ঘোড়া) পেয়েছেন ১১ হাজার ৯৬৩, বিএনপির মো. মুজিবুর রহমান (আনারস) পেয়েছেন ৪ হাজার ৩২৩, আওয়ামী লীগের অপর বিদ্রোহী প্রার্থী মুনছুর অহম্মেদ জিন্নাহ (টেলিফোন) পেয়েছেন ১ হাজার ৬৯৭ ভোট এবং জাতীয় পার্টির আলহাজ কলিমুল্লাহ (কাপ পিরিচ) পেয়েছেন ৯০১ ভোট।

রির্টানিং অফিসার এডিসি (সার্বিক) মো. সারোয়ার মের্শেদ চৌধুরী এই তথ্য দিয়ে জানান, বুধবার ৯টি কেন্দ্রে পুনরায় ভোট গ্রহন শেষে ৪৫টি কেন্দ্রের ফলাফল অনুযায়ী বেসরকারিভাবে এই ফলাফল ঘোষণা করা হয়। এর আগে ৩৬টি কেন্দ্রের ফলাফলে বিজয়ী প্রার্থী ১০ হাজার ৮শ’ ভোটে এগিয়ে ছিলেন। বুধবার অনুষ্ঠিত ৯ কেন্দ্রের ভোটার সংখ্যা ছিল ২৫ হাজার ২৮০। এর মধ্যে ১৩ হাজার ৯৫৩ জন তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেছেন। এছাড়া ভাইস চেয়ারম্যান পদে ২৬ হাজার ৯১৮ ভোট পেয়ে বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী আসাদুজ্জামান (তালা) এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে স্বতন্ত্র্য প্রার্থী ফরিদা ইয়াসমিন (কলস) ৩২ হাজার ৩৪৭ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে বিজয়ী হয়েছেন।

প্রথম দফার ২৩ মার্চ নির্বাচনী সহিংসতায় এখানে বালুয়াকান্দি ইউপি চেয়ারম্যান ও ইউপি আওয়ামী লীগের সভাপতি ছামসুদ্দিন প্রধানসহ ৩ ব্যক্তি নিহত ও ৫০ জন আহত হয়। এসব ঘটনায় তৎকালীন গজারিয়া থানার ওসি, ওসি (তদন্ত) এবং পুলিশ সুপারকে প্রত্যাহার করা হয়। তাই নানা কারণেই দেশ জুড়ে আলোচিত ছিল এই উপজেলার নির্বাচন।

স্বদেশ
===

গজারিয়ায় চেয়ারম্যান পদে তোতা, ভাইস চেয়ারম্যান পদে জামান ও ফরিদা নির্বাচিত

গজারিয়ায় উপজেলা নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী রেফায়েত উল্লাহ খান তোতা পুনরায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছে। এছাড়া ভাইস চেয়ারম্যান পদে বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী আশাদুজ্জামান জামান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে বিএনপি সমর্থিত অধ্যাপিকা ফরিদা ইয়াসমিন জয়লাভ করেছেন। গতকাল বুধবার গজারিয়া উপজেলার স্থগিত ৯টি ভোট কেন্দ্রের ভোট গণনা শেষে রাত ৮টার দিকে গজারিয়া উপজেলার সহকারী রিটার্নিং অফিসার ও ইউএনও ড. এটিএম মাহবুব-উল-করীম এ তথ্য জানিয়েছেন।

সহকারী রিটার্নিং অফিসার ও ইউএনও ড. এটিএম মাহবুব-উল-করীম জানান, নির্বাচনে রেফায়েত উল্লাহ খান তোতা (দোয়াত কলম) ১২ হাজার ৫০৭ ভোটের ব্যবধানে জয় লাভ করেন। তিনি পেয়েছেন ২৮হাজার ৬০৮ভোট। নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বিী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক দলীয় চেয়ারম্যান প্রার্থী আমিরুল ইসলাম (মোটর সাইকেল) পেয়েছেন ১৬ হাজার ১০১ ভোট।

বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী গজারিয়া উপজেলা যুবদলের সভাপতি ও বাউশিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আব্দুল মান্নান দেওয়ান মনা (ঘোড়া) ১১ হাজার ৯৬৩ ভোট পেয়ে তৃতীয়, ৪হাজার ৩২৩ ভোট পেয়ে বিএনপির প্রার্থী মুন্সীগঞ্জ জেলা বিএনপির যুগ্ন-সম্পাদক মজিবুর রহমান (আনারস) চতুর্থ, ১ হাজার ৬৯৭ ভোট পেয়ে আওয়ামী লীগ সমর্থিত মনছুর আহম্মেদ খান জিন্নাহ (টেলিফোন) পঞ্চম ও ৯০১ ভোট পেয়ে জেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি আলহাজ কলিমউল্লাহ (কাপ-পিরিচ) ষষ্ঠ হয়েছেন।

ভাইস চেয়ারম্যান পদে গজারিয়া উপজেলা ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি, যুবদল নেতা আশাদুজ্জামান জামান (তালা) ১হাজার ৯৮৬ ভোট বেশী পেয়ে জয়লাভ করেছেন। তিনি পেয়েছেন ২৩ হাজার ৯১৮ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বিী
উপজেলা বিএনপির যুগ্ন-সম্পাদক ইসহাক আলী (চশমা) পেয়েছেন ২৪ হাজার ৯৩২ ভোট। ৬ হাজার ১০ ভোট পেয়ে বাউশিয়া ইউপি আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিক মোস্তফা সারোয়ার বিপ্লব (উড়োজাহাজ) তৃতীয় ও ১ হাজার ৪৫৪ ভোট পেয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী ওমর আলী পালোয়ান (টিউব ওয়েল) চতুর্থ হয়েছেন।

মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে বিএনপি সমর্থিত অধ্যাপিকা ফরিদা ইয়াসমিন (কলস) ৯ হাজার ৭৬৪ ভোট বেশী পেয়ে জয়লাভ করেছেন। তিনি পেয়েছেন ৩২ হাজার ৩৪৭ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বিী স্বতন্ত্র প্রার্থী সুরাইয়া সরকার (ফুটবল) ১৭ হাজার ৫১৬ ভোট পেয়েছেন। ৮ হাজার ১৯ ভোট পেয়ে আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী মুক্তা বেগম (সেলাই মেশিন) তৃতীয় হয়েছেন।

উল্লেখ্য গত ২৩ শে মার্চ গজারিয়া উপজেলা নির্বাচনে ব্যাপক অনিয়ম ও সহিংসতায় কারণে ৯টি কেন্দ্রের ভোট স্থগিত করা হয়। এর পর বুধবার সকাল ৮টা থেকে প্রচুর নিরাপত্তা বলয়ের মধ্যে ভোট গ্রহণ শুরু হয়ে শেষ হয় বিকেল ৪টায়।

মুন্সীগঞ্জ বার্তা