মায়ের সন্ধান পায়নি শিশু মামুন

nikhojছয় বছরের শিশু মামুন অপেক্ষায় প্রহর গুনছে-কখন দেখা পাবে তার সবচেয়ে প্রিয় মা-বাবার। প্রতিটি ক্ষনই তার এই অপেক্ষা। কিন্তু এভাবে ছয় মাস কেটে গেলেও দেখা মিলছে না। দু’চোখের জলই এখন তার সঙ্গী। মামুন শুধু তার বাবার নাম- হামিদুল, মায়ের নাম- লিপি, দাদার নাম-আশরাফ আলী মুন্সী, চাচার নাম সাইফুল, ভাই- সজিব ও বোনের নাম- শ্রাবন্ত, বলতে পারে। কিন্তু এলাকার নাম বলতে পারছে না। সে অনেকটা ময়মনসিংহ এলাকার আঞ্চলিক ভাষায় কথা বলে। এক মহিলা তাকে একটি বিস্কুটের লোভ দেখিয়ে ট্রেন করে এখানে নিয়ে এসেছে। এর বেশী কিছু আর মামুন বলতে পারছেনা।

প্রায় ছয় মাস আগে রাজধানী ঢাকার সূত্রাপুর থানার সামনে রাত ১১ টায় মামুনকে কাঁদতে দেখে হোসনে আরা বেগম (৬০) নামের এক নারী মামুন আশ্রয় দেয়। পরে থানা কতৃপক্ষের নির্দেশে হোসনে আরা বেগম তাকে এক মাস লালন-পালন করে। কিন্তু একমাস লালন-পালনের পর তার পক্ষে আর সম্ভব না হওয়ায় মামুনকে তার মেয়ের সিরাজদিখান উপজেলার নিমতলী গ্রামে পাঠিয়ে দেয়। মেয়ের জামাই মো. নিজাম উদ্দিন জানান, তারা সন্তানের স্নেহ শিশুটিকে লালন পালন করলেও মা-বাবার জন্য সে অস্থির। তাই তারাও অপেক্ষা করছেন কবে শিশুটির মা-বাবার কাছে পৌছোতে পারবেন। নিজামউদ্দিন মুন্সীগঞ্জ জেলার সিরাজদিখান উপজেলার নিমতলার রাজ্জাক বেকারীতে কাজ করেন (মোবাইল নং ০১৭৬৪ ২৫৭৫৯৫)।

স্বদেশ