দুই আমেরিকা প্রবাসী পরিবারের পাল্টাপাল্টি অভিযোগ

sir prabasiসিরাজদিখানে অগ্নিসংযোগ
মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখানে রাতের আধারে বাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেয়ার পর আমেরিকা প্রবাসী একটি পরিবার অবরুদ্ধ হয়ে রয়েছেন। জমিজমা ও পাওনা টাকার বিরোধ নিয়ে শনিবার দিবাগত রাত ২ টার দিকে সিরাজদিখান উপজেলার ইছাপুরা ইউনিয়নের চন্দনধূল গ্রামের আমেরিকা প্রবাসী খোরশেদ আলম (এমকে আলম) ও তার ভাই শাহআলম মৃধার বাড়িতে এ ঘটনা ঘটেছে। তাদের অভিযোগ রাতের আধারে একই গ্রামের প্রতিপক্ষের অপর আমেরিকা প্রবাসী মাসুদ রানা গং বাড়িতে অগ্নিসংযোগ করার পর তারা প্রাণনাশের হুমকিতে বাড়িঘর থেকে বের হতে পারছেন না। নিরাপত্তার জন্য শাহআলম মৃধার এসএসসি পরীক্ষার্থী মেহেদী হাসানও ঘরবন্দি হয়ে পড়েছেন। এমনকি ভবনের কেচিগেইটেও তালা দিয়ে রেখেছেন হামলার ভয়ে।

শাহআলম মৃধা জানান, উপজেলার চন্দনধূল গ্রামের আমেরিকা প্রবাসী মাসুদ রানার সঙ্গে গত ২০১১ সালে পার্টনারে তিনি আলুর ব্যবসা করতেন। মাসুদ রানা আমেরিকা বসেই ব্যবসার জন্য টাকা পাঠাতেন শাহআলম মৃধা কাছে। ওই সময় তাদের দু’জনের আলু ব্যবসায় ১১ লাখ টাকা লোকসান হয়। লোকসানকৃত টাকা সমান ভাগে ভাগ করে নেয়ার কথা হয় দুজনের মধ্যে। কিন্তু আমেরিকা প্রবাসী মাসুদ রানা সমান ভাগে ভাগ করতে রাজি না থাকায় শাহআলম মৃধার সাথে ব্যবসা গুটিয়ে ফেলা হয়। এ নিয়ে তাদের মধ্যে বিরোধ দেখা দেয়। এরপর আমেরিকায় শাহআলম মৃধার ছোট ভাই খোরশেদ আলম মাসুদ রানার কাছ থেকে ৩০ লাখ টাকায় জমি কিনেন। অতি সম্প্রতি তারা দু’জনেই দেশে ফেরেন। কিন্ত জমির বর্তমান বাজার মূল্যে বেড়ে যাওয়ার অজুহাতে জমি লিখে না দিলে আমেরিকা প্রবাসী দুই পরিবারের মধ্যে বিরোধ দেখা দেয়। এ নিয়ে গত শুক্রবার গ্রাম্য সালিশ বসে। বৈঠকে এ কোন সুরাহা না হলে শনিবার দিবাগত রাত ২টার দিকে শাহআলম মৃধার বাড়িতে রক্ষিত আলু রাখার ঘরে অগ্নিসংযোগ করা হয়।
sir prabasi
শাহআলম মৃধা বলেন, মাসুদ রানার ভয়ে আমরা বাড়ি থেকে বের হতে পারছিনা। আমার ছেলে মেহেদী হাসান এবার এস,এস,সি পরীক্ষা দিচ্ছে। কিন্তু সে প্রইভেট পরতেও যেতে পারছে না। থানায় মামলা করলে পরিবারকে সবাইকে মেরে ফেলবে বলে হুমকি দেয়া হচ্ছে বলে তিনি দাবি করে বলেন।

এ ব্যাপারে প্রতিপক্ষের আমেরিকা প্রবাসী মাসুদ রানা তার বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ অসত্য ও বানোয়াট দাবি করে বলেন, আমি শাহআলম মৃধার ও তার ছোট ভাই খোরশেদের কাছে এক কোটির উপরে টাকা পাই। সে টাকা না দেয়ার জন্য নানা রকম ফন্দি করছে। তিনি ঢাকায় থাকেন জানিয়ে বলেন, আমার পাওনা টাকা পরিশোধ করতে না পেরেই আমার বিরুদ্ধেই নানা মিথ্যা অপবাদ দিচ্ছে।

মুন্সীগঞ্জ বার্তা