গজারিয়ায় আ’লীগের ২ চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকদের সংঘর্ষ

gazFightAlমুন্সীগঞ্জের গজারিয়া উপজেলায় আওয়ামী লীগ সমর্থিত দুই চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে উভয়পক্ষের অন্তত ১৫ জন আহত হয়। শনিবার বিকেল ৩টার দিকে গজারিয়া ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে এ ঘটনা ঘটে।

এ সময় চেয়ারম্যান প্রার্থী আমিরুল ইসলামের সমর্থকরা আসবাবপত্র ও চেয়ার ভাঙচুর করে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

সংঘর্ষে আহত আসলাম (৩৫), স্বপন মিয়া (৪৫), শাহ আলম (৪০), নাগরিক কমিটির নেতা আব্দুস সাত্তার (৩৫) ও রুমেলকে গুরুতর আহত‍ অবস্থায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। বাকিদের স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।
gazFightAl
গজারিয়া ইউপি চেয়ারম্যান মু. শফিউল্লাহ অভিযোগ করে বলেন, বিকেলে আওয়ামী লীগ সমর্থিত উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী রেফায়েতউল্লাহ খান তোতার পক্ষে সভা করছিলেন তারা। এ সময় চেয়ারম্যান প্রার্থী আমিরুল ইসলামের সমর্থকরা হামলা চালিয়ে আসবাবপত্র ভাঙচুর ও সমর্থকদের মারধর করে।

সন্ধ্যায় এ ঘটনায় গজারিয়া থানায় লিখিত অভিযোগ দাখিল করা হবে বলেও জানান তিনি।

গজারিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মামুন অর রশীদ বাংলানিউজকে জানান, নির্বাচনী সভা চলাকালে আওয়ামী লীগের দুই চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষ হয়েছে। তবে কোনো পক্ষই থানায় অভিযোগ দাখিল করেনি।

দলীয় সূত্র জানায়, কয়দিন আগে তৃণমূল নেতাকর্মীদের ভোটে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আমিরুল ইসলামকে দলীয় উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী ঘোষণা করা হয়। কিন্তু দুইদিন পর কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ দফতর সম্পাদকের স্বাক্ষরে রেফায়েতউল্লাহ খান তোতাকে দলীয় প্রার্থী ঘোষণা করা হয়। ফলে দুই চেয়ারম্যান প্রার্থীর মধ্যে বিরোধের সৃষ্টি হয়।

আগামী ২৩ মার্চ গজারিয়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর
===============

মুন্সীগঞ্জ আ.লীগের দু’গ্রপের সংঘর্ষে ওসিসহ আহত ১০

মুন্সীগঞ্জের গজারিয়ায় আওয়ামী লীগ সমর্থিত দুই চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকদের হামলায় গজারিয় থানার ওসিসহ আহত হয়েছেন ১০ জন। শনিবার দুপুরে গজারিয়া ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ের কাছে এ সংঘষর্ হয়।

আহতদের মধ্যে গজারিয়া থানার ওসি মামুন-অর-রশীদ, শাহজাহান (৪৫), পারভেজ (২৫) স্বপন (৪০), শাহআলম (৩৮), গনেশ (৩০), গাফ্‌ফার (৪০)কে উপজেলার বিভিন্ন স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ভর্তি করা হয়েছে। এ সময় বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ছবিসহ কার্যালয়ের চেয়ার ভাঙচুর করা হয়।

গজারিয়া থানার ওসি মামুন-অর-রশীদ জানান, দুপুর ১২টার দিকে গজারিয়া ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে আওয়ামী লীগ সমর্থিত চেয়ারম্যান প্রার্থী রেফায়েত উল্লাহ খান তোতার পক্ষে গজারিয়া ইউপি চেয়ারম্যান শফিউল্লা নির্বাচনী সভা করছিলেন। এ সময় পরিষদের পাশের রাস্তা দিয়ে আওয়ামী লীগের আরেক প্রার্থী আমিরুল ইসলাম সমর্থিত লোকজন মিছিল নিয়ে যাওয়ার সময় ওই মিছিল থেকে রেফায়েত উল্লাহ খান তোতার লোকজনের ওপর হামলা চালানো হয়। এতে দু’পক্ষের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ বেঁধে যায়। এ সময় গজারিয়া থানার ওসিসহ উভয় পক্ষের ১০ জন আহত হয়। ভাঙচুর করা হয় বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ছবিসহ কার্যালয়ের চেয়ার।

তিনি জানান, এ ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। তবে, রাত সাড়ে ৭টা পর্যন্ত থানায় কেউ মামলা করতে আসেনি।

উল্লেখ্য, বতর্মান চেয়ারম্যান রেফায়েত উল্লাহ খান তোতা স্থানীয় সংসদ সদস্য এডভোকেট মৃণাল কান্তি দাস ও গজারিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আমিরুল ইসলাম জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি মোহাম্মদ মহিউদ্দিনের সমর্থন নিয়ে গজারিয়া উপজেলা পরিষদে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

জাস্ট নিউজ