গজারিয়ায় আসামি ছিনতাইয়ে জড়িতরা ধরাছোঁয়ার বাইরে

courtমুন্সীগঞ্জে ধর্ষণ মামলায় অভিযুক্ত আসামি জামাল হোসেনকে গ্রেফতার করে থানায় নেয়ার সময় পুলিশের ওপর হামলা করে ছিনিয়ে নেয়ার ১১ দিন পরও আসামিরা প্রকাশ্যে ঘুরে বেরাচ্ছে। তারা একটি প্রভাবশালী মহলের ছত্রছায়ায় থাকায় রহস্যজনক কারণে পুলিশ গ্রেফতার না করায় গ্রামবাসী হতাশ।

এলাকাবাসী জানায়, ২৪ ফেব্র“য়ারি রাত ২টার দিকে গজারিয়া উপজেলার ইমামপুর ইউনিয়নের ষোলআনী গ্রামের ধর্ষণ মামলার আসামি জামাল হোসেনকে পুলিশ বাড়ি থেকে গ্রেফতার করে। থানায় নিয়ে যাওয়ার সময় জামালের স্বজনরা পিকআপ ভ্যানে হামলা চালিয়ে এসআই এইচএম জসিম উদ্দিন ও মিন্টু মোল্লা, এএসআই আমিনুলসহ আরও ৪ কনস্টেবলকে আহত করে জামালকে ছিনিয়ে নিয়ে যায়।

এ ব্যাপারে এসআই এইচএম জসিম উদ্দিন বাদী হয়ে ১৭ জনকে আসামি করে গজারিয়া থানায় একটি মামলা করেন। তবে তারা এখনও ধরাছোঁয়ার বাইরে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক গ্রামবাসী জানায়, আসামিরা উপজেলা পরিষদের সাবেক এক চেয়ারম্যানের ছত্রছায়ায় নিরীহ গ্রামবাসীর সম্পত্তি জবরদখল, নারীদের ধর্ষণসহ নানা অপকর্ম চালিয়ে আসছে। কেউ প্রতিবাদ করতে পারে না।

থানায় অভিযোগ করলেও তারা সব সময় ধরাছোঁয়ার বাইরে থাকে। পুলিশের ওপর আক্রমণ করার পরও পুলিশ ধরছে না। অথচ আসামিরা গ্রামেই ঘুরে বেরাচ্ছে।

যুগান্তর