কারাবন্দী সপু গুরুতর অসুস্থ : বিদেশে নেওয়ার দাবি স্ত্রীর

sapuজাতীয়তাবাদী স্বেচ্ছাসেবক দলের কারাবন্দী সাধারণ সম্পাদক মীর সরাফত আলী সপু গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় রাজধানীর বারডেম হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। হৃদরোগ, ডায়াবেটিস, থাইরয়েড, হার্টে ব্লকসহ বেশকয়েকটি জটিল রোগে আক্রান্ত তিনি। বর্তমানে তার শারীরিক অবস্থা আশঙ্কাজনক। বারডেমের মেডিকেল বোর্ড, সোহরাওয়ার্দী হাসপাতাল, ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন, ইউনাইটেড হাসপাতালের সংশ্লিষ্ট চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, বাংলাদেশে তার চিকিৎসা করা সহজ নয়। তাই উন্নত চিকিৎসার জন্য সপুকে বিদেশ নেওয়ার দাবি জানিয়েছেন তার সহধর্মিণী আঞ্জুমান আরা বেগম।

কারা অধিদফতরের আইজি প্রিজনকে লেখা চিঠিতে আঞ্জুমান আরা বেগম বলেন, ‘আমার স্বামীর হৃদরোগ সমস্যা ক্রমেই ক্রমেই বৃদ্ধি পাচ্ছে। তার স্বাস্থ্য খুবই ঝুঁকির মধ্যে। আমরা আশঙ্কা করছি, অবিলম্বে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বিদেশ নেওয়া না হলে যে কোনো সময় মারাত্মক পরিস্থিতির সৃষ্টি হতে পারে।’ পরে কারা কর্তৃপক্ষ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে চিঠি লেখে।

গত ২৭ ফেব্রুয়ারি স্বরাষ্ট মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিব সালমা বেগম স্বাক্ষরিত কারা মহাপরিদর্শককে দেওয়া এক চিঠিতে বলা হয়, ‘সপুকে কারাবিধি মান্য করে বাংলাদেশে উন্নত চিকিৎসা দেওয়া অথবা বিচারালয়ের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী কার্যক্রম গ্রহণের জন্য নির্দেশক্রমে অনুরোধ করা হলো।’ গত বছরের ১৪ নভেম্বর রাজধানীর বাংলামোটর এলাকা থেকে সন্ধ্যায় সপুসহ সংগঠনের সাংগঠনিক সম্পাদক শফিউল বারী বাবুকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

এরপর সপুকে ২৩ মামলায় গ্রেফতার দেখানো হয়। গ্রেফতারের দুই দিন পর তাকে টানা ৫ দিনের রিমান্ডে নেওয়া হয়। রিমান্ডে থাকাবস্থায় তার হার্ট অ্যাটাক হয়। তাকে দ্রুত রাজারবাগ পুলিশ হাসপাতালে নেওয়া হলে কর্তৃপক্ষ ঢাকা মেডিকেল হাসপাতালে স্থানান্তর করে। এরপর ঢাকা মেডিকেল হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তাকে বারডেম হাসপাতালে রেফার্ড করে। বর্তমানে বারডেমের মেডিসিন ইউনিট-২ এর ৮০১ নম্বর কেবিনে অধ্যাপক ডা. রেজাউল করিমের তত্ত্বাবধানে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

বাংলাদেশ প্রতিদিন