মুন্সীগঞ্জে আ’লীগের দু’গ্রুপের সংঘর্ষে আহত ২

arifmpতুচ্ছ ঘটনার জের ধরে মুন্সীগঞ্জ শহরের লিচুতলা এলাকায় বুধবার বিকেলে আ’লীগ কর্মীদের দু’গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষে শহর ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি ছুরিকাহত ও অপর ১ কর্মী গুলিবিদ্ধ হয়েছেন।
arifmp
ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি আরিফ হোসেনকে (৪৬) মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে ও গুলিবিদ্ধ মো: আক্কাসকে (৩৮) ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরন করা হয়েছে।

সদর থানার সেকেন্ড অফিসার সুলতান উদ্দিন জানান, বিকেল ৫ টার দিকে দক্ষিন কোর্টগাঁও এলাকাকে ফকিন্নি কোর্টগাঁও বলে মন্তব্য করায় আ’লীগ কর্মী শাহ-জালাল ও পৌর-কাউন্সিলর মকবুল হোসেনের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে দলীয় দু’গ্রুপের কর্মীরা সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে।

যমুনা নিউজ
==============

মুন্সীগঞ্জে শহর ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি ছুিরকাহত, গুলিবিদ্ধ ১

মুন্সীগঞ্জ শহরের দক্ষিন কোটগাঁও লিচুতলা এলাকায় সন্ত্রাসীদের হামলায় শহর ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতিসহ ২ জন আহত হয়েছে। আজ বুধবার বিকাল ৫ টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

অ্যভন্তরীণ বিরোধরে জের ধরে দু-পক্ষের মধ্যে ঝগড়া বাধে। এসময় শহর ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি আরিফুর রহমান ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে ঝগড়া ছাড়াতে গেলে তাকে পেছন থেকে ছুরিকাহত করা হয় । এসময় আক্কাস (৪৫) নামের এক ব্যক্তি গুলিবিদ্ধ হয়।

আরিফুর রাহমান ও আক্কাসকে গুরুতর আহতাবস্থায় মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে জরুরি আনা হয়। পরে গুলিবিদ্ধ আক্কাসকে আশংকাজনক অবস্থায় ঢাকা মেডেকেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শহীদুল ইসলাম জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থালে পুলিশ পরিদর্শন করা হয়েছে। ঘটনার সঙ্গে জড়িত সন্ত্রাসীদের খোঁজে তল্লাসি চালানো হচ্ছে। তবে কোন পক্ষই এখনও অবিযোগ করা হয়নি।

এটিএনবিডি
=======

মুন্সীগঞ্জে আ.লীগের ২ গ্রুপের সংঘর্ষ

মুন্সীগঞ্জ শহরের দক্ষিণ কোর্টগাঁও বাসস্ট্যান্ডে তুচ্ছ ঘটনা নিয়ে বুধবার বিকালে আওয়ামী লীগের দু’গ্রুপে সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধসহ দু’জন আহত হয়েছে। গুলিবিদ্ধ চায়ের দোকানী আক্কাসকে(৪৫) মূমূর্ষু অবস্থায় ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ছুরিকাহত শহর ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি মো. আরিফ হোসেনকে (৪৪) মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এই নিয়ে মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে আওয়ামী লীগের দু’গ্রুপের মধ্যে ধস্তাধস্তি ও বাক বিতন্ডা হয়েছে। বিরাজ করছে উত্তেজনা। অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, উপজেলার নির্বাচন নিয়ে আলাপ আলোচনার এক পর্যায়ে কয়েকজন দক্ষিণ কোর্টগাঁওকে ‘ফকিন্নি কোর্টগাঁও’ বলায় দক্ষিণ কোর্টগাঁও বাসিন্দা আক্কাসহ কয়েকজন ক্ষুব্দ হয়ে উঠে। এই নিয়ে শুরু হয় সংঘর্ষ। এই সময় বেশ কয়েক রাউন্ড গুলির শব্দ শোনা যায়। পরে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে। কাল বৃহস্পতিবার এই সদর উপজেলায় উপজেলার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

স্বদেশ
====