আনিস-পুস্তির হাড্ডাহাড্ডি লড়াই, স্বপন আগেই ফ্লপ

3 ucউপজ়েলা নির্বাচনে শেষ দিকের প্রচারনায় ব্যস্ত থেকে ব্যস্ততর হয়ে উঠেছে প্রার্থীরা, সকাল কিংবা রাতে শিডিউল ভিত্তিক প্রচারনা গনসংযোগে শহরের বন্দরের গ্রামের প্রতিটি ঘরে ঘরে গিয়ে নিজ়েদের জাহির করে বেড়াচ্ছে প্রার্থীরা, প্রথম দিকে প্রচারনায় শীর্ষে থাকা সত্ত্বেও নির্বাচন ঘনিয়ে আসার পাশাপাশি নির্বাচনী মাঠে পিছু হাটছে বিএনপি থেকে বহিঃষ্কৃত প্রার্থী সালাউদ্দিন খান স্বপন।

আওয়ামী লীগের একক প্রার্থী মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার ও সদর উপজ়েলা পরিষদের চেয়ারম্যান আনিসউজ্জামান আনিস নির্বাচনী মাঠে শক্ত অবস্থানে রয়েছে। তার পক্ষে স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধারা ও মুন্সীগঞ্জ ৩ আসনের সংসদ সদস্য এড, মৃনাল কান্তি দাস সক্রিয় প্রচারনা চালাচ্ছে। নির্বাচনের আগে মুন্সীগঞ্জ আওয়ামী লীগ অভ্যন্তরীন দ্বন্দ কাটিয়ে উঠায় প্রার্থীর সমর্থকরা ঐক্যবদ্ধ হয়ে প্রফুল্ল প্রচারনায় চাঙ্গা হয়ে উঠেছে। চর আঞ্চলের পাচটি ইউনিয়নে আনিসের জোড়াল সমর্থন থাকায় তিনিও শীর্ষ স্থান ধরে রাখার দাবী রাখে। ঐসব ইউনিয়নে চাহিদা অনু্যায়ী সর্বোচ্চ ভোট নিশ্চিত করতে সাধ্য অনুযায়ী পরিশ্রম চালিয়ে যাচ্ছে প্রার্থী ওতার সমর্থকরা। উঠান বৈঠক, গনসংযোগ, মাইকিং সতর্ক নজরদারীর কারনে কোন কিছুরই কমতি হচ্ছেনা।


অপরপক্ষের বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী মোশারফ হোসেন পুস্তিও নির্বাচনের মাঠে অভিজ্ঞ খেলোয়ার। রামপাল ইউনিয়ন অপ্রতিদ্বন্দি চেয়ারম্যান হয়ে নিজ়েকে যোগ্যতার প্রমান দিয়েছেন অনেক আগেই। নিজ়ের কম্পানিতে অগনিত বিএনপি কর্মীকে চাকুরী দেয়ার সুবাদে এছাড়া ও রামপাল ও আশপাশের বিভিন্ন এলাকার দরিদ্র পরিবারের শিক্ষিত ছেলেমেয়েদের অনেককেই ভালো বেতনে চাকরির ব্যবস্থা করে দেওয়ায় দাতা হিসেবে রামপাল বজ্রযোগিনী ও এর আশে পাশের এলাকায় ভালো পরিচিতি অর্জন করেছে। অই সব এলাকায় ৭০ শতাংশ বিএনপির ভোটার থাকায় অধিকাংশটা নিজ়ের ভোট ব্যাংকে যাবে বলে আশাবাদী তিনি। অপরদিকে তার সক্রিয় সমর্থনে রয়েছে জনপ্রিয় বিএনপিনেতা আব্দুল হাই। আব্দুল হাইয়ের বিশেষ নজরে বিএনপি কর্মীরা সাধ্য মত ভোট জোগারে মরিয়া হয়ে উঠেছে।

২৭ ফেব্রুয়ারী মুন্সীগঞ্জ সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচন ঘীরে শেষ মুহূর্তের প্রচারণায় ব্যস্ত প্রার্থীরা। ভোটগ্রহণ অবাধ ও সুষ্ঠু হলে আওয়ামী লীগ ও বিএনপি সমর্থিত দুই প্রার্থীর মধ্যেই হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হবে এমনটা মনে করেন বেশির ভাগ ভোটার।

মুন্সিগঞ্জটাইমস