শ্রীনগরে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান নিয়ে জটিলতা

srinagarvcমুন্সীগঞ্জের শ্রীনগর উপজেলায় বিএনপির সমর্থিত ভাইস চেয়ারম্যান নিয়ে নানা নাটক চলছে। দু’প্রার্থীকে ঘিরে উপজেলা বিএনপিও দু’ভাগে বিভক্ত। এ অবস্থায় মঙ্গলবার দুপুর ২টার দিকে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ও যুগ্ন-মহাসচিব রুহুল কবীর রিজভী জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আলী আজগর মল্লিক রিপন ও শ্রীনগর উপজেলা বিএনপির নেতাদের ঢাকার নয়াপল্টনস্থ বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে তলব করে নেন।

এ সময় সেখানে শ্রীনগর উপজেলা বিএনপির সভাপতি আলহাজ মমিন আলী, সিনিয়র সহ-সভাপতি শহীদুল ইসলাম মৃধা, সাধারণ সম্পাদক মো. দেলোয়ার হোসেনসহ ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী জেলা বিএনপির যুগ্ন-সম্পাদক সেলিম হোসেন খান ও অপর প্রার্থী স্বেচ্ছাসেবক দলের কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক ও জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি আওলাদ হোসেন উজ্জলসহ দু’পক্ষের সমর্থকরা উপস্থিত ছিলেন। তবে, বৈঠকের সিদ্ধান্ত নিয়ে দু’পক্ষই পরস্পর বিরোধী মত প্রকাশ করেছেন। এ অবস্থায় নির্বাচন থেকে কোন পক্ষই আপাতত পিছ পা হচ্ছে না বলে মনে হচ্ছে।


শ্রীনগর উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মো. দেলোয়ার হোসেন বলেন-নির্বাচনে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আলী আজগর মল্লিক রিপনকে দায়িত্ব দেন একজনকে বসানোর। রুহুল কবীর রিজভী বলেন- দলের চেয়ারপারসন উজ্জলকে নির্বাচন করার পক্ষে মত দিয়েছেন। এ অবস্থায় বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শাহ মোয়াজ্জেম হোসেন ও জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আলী আজগর মল্লিক রিপন উপজেলা বিএনপির শীর্ষ নেতাদের নিয়ে দু’-একদিনের মধ্যে বসে প্রার্থী সেলিম হোসেন খানকে বসিয়ে দেয়ার সিদ্ধান্ত দেয়া হয়েছে।

তবে, সেলিম হোসেন খান সমর্থক উপজেলা বিএনপির যুগ্ন-সম্পাদক আবুল কালাম কানন ও যুবদল কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য তাজুল ইসলাম বলেন-বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ও যুগ্ন-মহাসচিব রুহুল কবীর রিজভী তাদের ডেকে নিয়ে কোন সিদ্ধান্ত দিতে পারেননি। উপজেলা বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি শহীদুল ইসলাম মৃধা বলেছেন, একজনকে বসানোর দায়িত্ব দেয়া হয়েছে জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আলী আজগর মল্লিক রিপনকে। তবে, কাউকে এ মুহুর্তে বসানো কঠিন বলে তিনি মন্তব্য করেন। জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আলহাজ রিপন মল্লিকও এর সত্যতা স্বীকার করেছেন।

উল্লেখ্য, গত ৯ ই ফেব্রুয়ারি কেন্দ্রীয় বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শাহ মোয়াজ্জেম হোসেন তার গুলশানের বাসভবনে প্রার্থী ও এলাকার দলীয় নেতাকর্মীদের নিয়ে চেয়ারম্যান পদে আলহাজ মমিন আলী, ভাইস চেয়ারম্যান পদে জেলা বিএনপির যুগ্ন-সম্পাদক সেলিম হোসেন খান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে জেলা মহিলা দলের সাধারণ সম্পাদক জাহানারা বেগমকে দলীয় প্রার্থী হিসেবে ঘোষণা দেয়। তার এ ঘোষণার পর ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি আওলাদ হোসেন উজ্জল সভাস্থল ত্যাগ করে চলে আসেন।

মুন্সীগঞ্জ বার্তা