মুন্সীগঞ্জ সদর হাসপাতালে তিন মাস ধরে ডাক্তার শুন্য

mghবর্ষন মোহাম্মদঃ গত বছরের নভেম্বর মাস থেকে মুন্সীগঞ্জ জ়েনারেল হাসপাতালে বিভাগ ডাক্তার শুন্য থাকায় রোগীদের সিমাহীন দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। সরজমিনে গিয়ে দেখা যায় হাসপাতালের দ্বিতীয় তালায় ২০৪ নম্বর রুমে হাত পা ভাঙ্গা তথা অর্থপেডিক্স বিভাগে তালা ঝুলছে। এর আগে অর্থোপেডিক্স বিভাগে জুনিয়র কনসালটেন্ট এর দ্বায়ীত্ত্বে ছিলেন ড: অরুন কান্তি পাল।

হাসপাতালের নতুন দ্বায়িত্ত্বে আসা নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক জন কর্মকর্তা জানান, প্রায় তিন মাস ধরে অর্থোপেডিক্স বিভাগ ডাক্তার শুন্য। প্রশাসনকে জানানোর পরে ডাক্তার নিয়োগের বিষয়ে কোন পদক্ষেপে নেয়া হচ্ছে না। চক্ষু বিভাগে কোন ডাক্তার নেই। মেডিসিন বিভাগ অনেকদিন ডাক্তার শুন্যতা থাকার পর বেশ কিছু দিন আগে ডাক্তার নিয়োগ দেয়া হয়েছে।


অর্থোপেডিক্স বিভাগে ডাক্তার দেখাতে আসা রোগী শামসুল ইসলাম মুন্সীগঞ্জ টাইমসকে জানান, টিকেট বিভাগে লম্বা সিরিয়াল, তার মধ্যে আবার ভাঙ্গা পা নিয়ে উঠতে হয় দুই তালায়, নেই ইসট্রেচার এর কোন ব্যবস্থা, উপরে গিয়ে সেখানেও দেখা যায় ডাক্তার নেই। আবার নিচে এসে এক্সরে করিয়ে আবারও সেই দুই তালায় মেডিসিন বিভাগ। রোগীদের দিকে খেয়াল করার যেনো কেউ নেই।
mgh
অর্থোপেডিক্স বিভাগ সম্পূর্ণ অনিয়ম ও অব্যবস্থাপনার মধ্যদিয়ে চলছে। এসব অব্যবস্থাপনার কারনে অনেক রোগীকে তার স্বজনরা হাসপাতাল থেকে নিয়ে বেসরকারি ক্লিনিকে ভর্তি করায় বলেও তারা জানান।

মুন্সিগঞ্জটাইমস