পুলিশ সদস্য নিহতের ঘটনায় ডিআইজির দু:খ প্রকাশ

gazaria p janajaঅপরাধের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থানে দাঁড়িয়ে স্বীয় দায়িত্ব-কর্তব্য পালনকালে যখন শুনি অপরাধীর হাতে পুলিশের সদস্য সহকর্মীর মৃত্যু হয়েছে, তখন বুকের ভেতর অনেক কষ্ট হয়। পুলিশ হেড কোয়াটারের অপরাধ শাখার ঢাকা রেঞ্জের অতিরিক্ত ডিআইজি মো: শফিকুল ইসলাম তার সহকর্মী হারানোর বেদনায় তিনি আবেগ আপ্লুত কণ্ঠে বলেন, পুলিশের সেই ব্যথা বুঝে না।


মুন্সীগঞ্জ শহরের কাছে ধলেশ্বরী নদীর পাড়ে জেলা পুলিশ লাইনে বুধবার বিকেলে ডাকাতের হাতে নিহত পুলিশের কনস্টেবল আব্দুল মালেকের নামাজের জানাযায় তিনি এ কথা বলেন।

এদিকে, পুলিশ লাইনে জানাযা শেষে নিহত কনস্টেবল মালেকের লাশ নিয়ে ঢাকার ধামরাইয়ের বালিথা গ্রামের উদ্দেশ্যে রওনা দেন স্বজনরা। বড় ভাই মো: ইমরানের হাতে কনস্টেবল মালেকের লাশ হস্তান্তর করা হয়।
gazaria p janaja
কনস্টেবল মালেক ধামরাইয়ের বালিথা গ্রামের সামান্য এক কৃষকের ছেলে। তারা ৪ ভাই। তার বাবা আফাজউদ্দিন ও মা জেবুন্নেসা। তার স্ত্রীর নাম মনিরা বেগম, ছেলে মোমিনুল ইসলাম ও মেয়ে নাম বৃষ্টি।

উল্লেখ্য, মঙ্গলবার দিবাগত গভীর রাতে গজারিয়া উপজেলার তেতৈতলা গ্রামে মেঘনায় ডাকাতের সঙ্গে সংঘর্ষে পুলিশ কনস্টেবল আব্দুল মালেক নিহত হয়।

যমুনা নিউজ