শ্রীনগরে আওয়ামী-লীগ বিএনপিতে নির্বাচনী হাওয়া জাপা-বিকল্পধারা নিরব

01 shohidul islamআরিফ হোসেন: উপজেলা নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার পর পরই শ্রীনগরে প্রার্থী, সমর্থক ও ভোটারদের মধ্যে বইতে শুরু করেছে নির্বাচনী হাওয়া। প্রধান দুদল আওয়ামী লীগ ও বিএনপির পক্ষে একাধিক প্রার্থী দৌড়ঝাপ শুরু করলেও শেষ পর্যন্ত কারা পাচ্ছেন দলীয় সমর্থন এ নিয়ে চলছে গুঞ্জন। অপরদিকে বিকল্পধারার চেয়ারম্যান সাবেক রাষ্ট্রপতি বি, চৌধুরীর বাড়ি এই উপজেলায় হলেও তাদের দলীয় কোন প্রার্থীর নাম এখনো শুনা যাচ্ছেনা। জাতীয় পার্টির পক্ষ থেকেও কোন প্রার্থীর দৌড় ঝাপ নেই। সঙ্গত কারণেই বড় দুদলের সম্ভাব্য প্রার্থীদের নিয়ে পক্ষে-বিপক্ষে শুরু হয়েছে আলোচনা, সমালোচনা। এরই মধ্যে দলীয় সর্থন আদায়ের জন্য প্রার্থীরা তাদের স্ব-স্ব দিকে থেকে লবিং ও তদবির শুরু করেছেন। শুভেচ্ছা বিনিময়ের জন্য ছুটে বেরাচ্ছেন উপজেলার ১৪ টি ইউনিয়নের বিভিন্ন মসজিদ, মন্দির, হাট-বাজার ও প্রত্যন্ত অঞ্চলে।
01 shohidul islam

02 selim ahamed

03 aowlad hossain ujjal

04 shekh alomgir

05 selim khan

06 aminul islam
শ্রীনগর উপজেলায় মোট ভোটার সংখ্যা ১৮৯,৭৩৩ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ৯৫,৪০৮ ও নারী ভোটার ৯৪,০৬৫ জন। ২০০৯ সালের নির্বাচনে আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী আলহাজ্ব বেলায়েত হোসেন ঢালী চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। বিএনপি সমর্থিত কোন প্রার্থী চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দীতা না করায় আওয়ামী লীগ এর বিদ্রোহী প্রার্থী কেন্দ্রীয় যুবলীগ নেতা জাকির হোসেন ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান কাজী আজিজুল হক লেবু কাজী প্রতিদ্বন্দীতা গড়ে তুলেন। বেলায়েত হোসেন ঢালী হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে দুই বছর আগে মারা যাওয়ার পর ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান হিসাবে দায়িত্ব নেন সেলিম আহমেদ ভূইয়া।

এবছর সেলিম আহমেদ ভূইয়া আওয়ামী লীগ থেকে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করবেন বলে দলীয় সূত্র জানায়। আওয়ামী লীগ থেকে ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হওয়ার দৌড়ে উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ন সম্পাদক ও সাবেক যুবলীগ সভাপতি শেখ মো: আলমগীর তার ক্লিন ইমেজ নিয়ে অনেকটাই এগিয়ে রয়েছেন। এছাড়াও একই পদে উপজেলা সেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক আমিনুল ইসলাম তুলু ও বাঘড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম প্রতিদ্বন্দিতা করতে পারেণ বলে গুঞ্জন রয়েছে। মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করতে পারেন গত নির্বাচনের আওয়ামী লীগ প্রার্থী আসিয়া বেগম।

অপরদিকে বিএনপির পক্ষে নির্বাচন করার জন্য মাঠে নেমেছেন উপজেলা বিএনপির সিনিয়র সহ সভাপতি মোঃ শহিদুল ইসলাম, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান কাজী আজিজুল হক লেবু কাজী, কেন্দ্রিয় সেচ্ছাসেবক দলের সহ সাংগঠনিক সম্পাদক আওলাদ হোসেন। বিএনপি সূত্র জানায় দলীয় ভাবে এখনো কাউকে চুড়ান্ত করা হয়নি। তবে শেষ মুহ্হর্তে উপজেলা বিএনপির সভাপতি আলহ্জ্বা মমিন আলীও নির্বাচনে আসতে পারেন। বিএনপি থেকে ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দিতা করতে পারেন পাটাভোগ ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান সেলিম হোসেন খান। মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে লড়তে পারেন উপজেলা মহিলা দলের সভানেত্রী জাহানারা বেগম।

আওয়ামী লীগ-বিএনপির বাইরে এবারও প্রাথী হবেন গত নির্বাচনের আলোচিত মুখ কেন্দ্রিয় আওয়ামী লীগ নেতা জাকির হোসেন।