ভারতে দর্শক মাতালো বাংলাদেশের থিয়েটার সার্কেল

natok indiaভারতের উড়িষ্যার কটকে আন্তর্জাতিক নাট্যোৎসবে দর্শকের হৃদয় জয় করেছে বাংলাদেশের থিয়েটার সার্কেল। উদ্বোধনী দিনে থিয়েটার সার্কেল মঞ্চস্হ করে জনপ্রিয় প্রযোজনা মাইমো ড্রামা ‘পাহারা’।

ভারতের থিয়েটার মুভমেন্ট আয়োজিত এই নাট্যোৎসবটিতে বাংলাদেশ, শ্রীলঙ্কা, নেপাল, থাইল্যান্ড ও স্বাগতিক ভারতের ৮০টি দল অংশ নিচ্ছে। বাংলাদেশের একমাত্র দল হিসাবে অংশ নেয় মুন্সীগঞ্জের ‘থিয়েটার সার্কেল’। সোমবার রাতে কটকের কলা বিকাশ কেন্দ্রে এই উৎসবের জমকালো উদ্বোধন করেন এলাহাবাদের সাবেক প্রধান বিচারপতি ডিপি মহাপাত্র। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন কথা শিল্পী পদ্মশ্রী ড. প্রতিভা রায়। এ অনুষ্ঠানে বিভিন্ন অঞ্চলের সংস্কৃতি দর্শকদের মুগ্ধ করে। তবে বাংলাদেশের নাটকটি ব্যাপক জনপ্রিয়তা অর্জন করে। রক্ষক যদি ভক্ষক হয়, তখন জাতীয় সম্পদ কিভাবে ভূলুন্ঠিত হয়- সেই বিষয়টিই ফুটে ওঠে সংলাপবিহীন এই নাটকে।
natok india
নাটক মঞ্চস্হ শেষে ভারতের বিশিষ্ট সাংস্কৃতিকবোদ্ধারা এর ভূয়সী প্রসংসা করেন। আর দর্শকদের মুহুর্মুহু করতালি গোটা কলা বিকাশ কেন্দ্র মুখরিত করে তোলে। বিগত ৩০ বছরে কটকে প্রথমবারের মত মাইমো ড্রামা মঞ্চস্হ করায় মঙ্গলবার রাতে বাংলাদেশ দলকে বিশেষভাবে সংবর্ধনা দেয়া হয়। বাংলাদেশ বিশেষ ট্রফি তুলে দেন মিসেস মহাপাত্র।


নাট্যকার জাহাঙ্গীর আলম ঢালীর নির্দেশনায় এই নাটকটিতে অভিয়ন করেন- সুমী দাস, নাঈম সরকার, নাজমূল হাসান, সাইফুল ইসলাম সাইফ, সাব্বির হোসাইন জাকির, জাহাঙ্গীর আলম ঢালী ও মীর নাসিরউদ্দিন উজ্জ্বল। ৮ সদস্যের এই নাট্যদলের নেতৃত্ব দনে পিপিলস থিয়েটার এ্যাসোসিয়েশনের আন্তর্জাতিক সম্পাদক আনিসুর রহমান শিপলু।

পিপিলস থিয়েটার এ্যাসোসিয়েশনের সার্বিক সহযোগিতায় ভারতের এই উৎসবে বাংলাদেশ দলটি অংশ নেয়। এ্যাসোসিয়েশনের উপদেষ্টা ও বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমীর মহাপরিচালক লিয়াকত আলী লাকী জানান, সারা বিশ্বের সাংস্কৃতিক মেল বন্ধণে এই উৎসবে বাংলাদেশের অংশগ্রহন প্রশংসার দাবী রাখে। এ যাবৎ পিপল থিয়েটার এ্যাসোসিয়েশনের সদস্য দল ৬৬ টি বিশ্ব নাট্যোৎসবে উৎসবে অংশ নিয়েছে, যা দেশজ সংস্কৃতি বিশ্বে ছড়িয়ে দিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে সক্ষম হয়।
natok india2
আয়োজক সংগঠন থিয়েটার মুভমেন্টের সভাপতি ড. নারায়ন সাহো জানান, এই উৎসবে ৫০টি দল অংশ গ্রহনের কথা থাকলেও পরবর্তীতে তা বৃদ্ধি পেয়ে এখন এর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৮০টি। ভারতের প্রায় প্রতিটি প্রদেশের একাধিক দল এই উৎসবে যোগ দিচ্ছে তাদের নিজস্ব সংস্কৃতি নিয়ে তাই উৎসবটিতে যুক্ত হয়েছে ভিন্নমাত্রা। ২০ জানুয়ারি থেকে শুরু হওয়া ১৪তম গ্লোবাল থিয়েটার ফেস্টিবল চলবে ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত। উৎসবকে ঘিরে ভারতের অন্যতম সাংস্কৃতিক রাজধানী হিসাবে পরিচিত কটকে বিরাজ করছে উৎসব আমেজ।

স্বদেশ