লৌহজংয়ে একরাতে তিন বাড়িতে ডাকাতি

dakatমুন্সীগঞ্জের লৌহজংয়ে একরাতে ৩ বাড়িতে ডাকাতি হয়েছে। এ সময় ডাকাতদের হামলায় ৩ জন আহত হয়েছে। ডাকাতরা নগদ ৬২হাজার টাকা, ১০ভরি সোনার গহনা, ৭ ভরি রূপা লুটে নেয়। মঙ্গলবার দিবাগত রাতে লৌহজং উপজেলার গাঁওদিয়া ও আপরগ্রামে এ ডাকাতি সংঘটিত হয়।

জানা গেছে, মঙ্গলবার রাত সোয়া ১টায় আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর লোক পরিচয় দিয়ে গাঁওদিয়া গ্রামে জাহাঙ্গীরের বাড়ির দরজা ভেঙ্গে ১০-১৫জনের ডাকাত দল ঘরের ভেতর প্রবেশ করে। পরে অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে ঘরের লোকজনের হাতÑপা বেঁধে নগদ ১লাখ ২৯ হাজার টাকা, ১০ভরি সোনার গহনা, ১১ ভরি রূপা ও ৮টি মোবাইল সেট নিয়ে সটকে পরে।

একই রাত সোয়া ২টায় পাশাপাশি আপর গ্রামের মুক্তার বেপারীর বাড়িতে দরজা ভেঙ্গে ঘওে ভেতরে প্রবেশ করে। এ সময় ডাকাতরা মুক্তার হোসেন ও তার স্ত্রী বিউটিকে ছুরিকাঘাত করে নগদ ৫৭ হাজার নগদ টাকা, ৪টি মোবাইল সেট ও তার পাশে থাকা ভাই ফরিদ বেপারীর ঘরে দরজা ভেঙ্গে প্রবেশ করে নগদ ৫ হাজার টাকা নিয়ে যায়। এর পরপরই


পাশের বাড়ি জাব্বার শেখের ঘরের দরজা ভেঙ্গে ঘরে প্রবেশ করে ডাকাতরা। এসময় জাব্বার শেখ ও তার পরিবারের কেউ বাড়িতে ছিল না। পরে বাড়ির তত্বাবধায়ক শাহআলমকে অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে নগদ ৫ হাজার টাকা, ৪ ভরি রূপা ও ২টি মোবাইল সেট নিয়ে কেটে পরে ডাকাতরা।

এদিকে, ছুরিকাহত বিউটি বেগমকে ঢাকা মেডিক্যাল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এছাড়া মুক্তার হোসেন ও শাহ আলম কে স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ব্যাপারে লৌহজং থানার ওসি আবুল কালাম আজাদ বলেন, ছোট একটি চুরির ঘটনা ঘটেছে। এর বাইরে কোন ঘটনা ঘটেনি।

মুন্সীগঞ্জ বার্তা
========

একরাতে তিন বাড়ীতে ডাকাতি, ডাকাতের হামলায় আহত ৩

লৌহজং উপজেলার গাঁওদিয়া ও আপর গ্রামে মঙ্গলবার মধ্যরাতে তিন বাড়ীতে ডাকাতি সংগঠিত হয়েছে। এসময় ৩ জন আহত হয়েছে ডাকাতদের হামলায়।

জানাযায়, রাত সোয়া ১টায় গাঁওদিয়া গ্রামে জাহাঙ্গীরের বাড়ীতে দরজা ভেঙ্গে ২০/২৫জনের একটি ডাকাত দল ঘরের ভিতর প্রবেশ করে নিজেদের আইনের লোক বলে পরিচয় দেয় এবং অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে ঘরের লোকজন কে হাতপা বেধে নগদ ৬২ হাজার টাকা, ১০ভরি স্বর্ণলংকার,৭ভরি রূপা নিয়ে সটকে পরে। এরপর রাত সোয়া ২টায় পাশাপাশি আপর গ্রামের মুক্তার বেপারীর বাড়িতে দরজা ভেঙ্গে ঘরে প্রবেশ করে মুক্তার হোসেন ও তার স্ত্রী বিউটির উপর হামলা চালায় এসময় ডাকাতরা দারালো অস্ত্র দিয়ে বিউটির কানে ও মাথায় আঘাত করে এবং তাদের কাছ থেকে ৫৭ হাজার নগদ টাকা, স্বর্ণলংকার ও ৪টি মোবাইল সেট নিয়ে যায় এবং তার পাশের বাড়িতে থাকা ভাই ফরিদ বেপারীর ঘরে দরজা ভেঙ্গে প্রবেশ করে নগদ ৫ হাজার টাকা নিয়ে যায়। পরে পাশের বাড়ি জাব্বার শেখের ঘরের দরজা ভেঙ্গে ঘরে প্রবেশ করে এসময় জাব্বার শেখ ও তার লোকজন কেউ বাড়িতে না থাকায় তার বাড়িতে থাকা কেয়ার টেকার শাহআলম কে অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে নগত ৫ হাজার টাকা, ৪ ভরি রূপা ও ২টি মোবাইল সেট নিয়ে সটকে পরে। এসময় তাদের ডাকচিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এলে ডাকাত দল পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়।

গুরুত্বর আহত বিউটি বেগম কে ঢাকা মেডিক্যাল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে এছাড়া মুক্তার হোসেন ও শাহ আলম কে স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। খবর পেয়ে জেলা পুলিশ সুপার ঘটনা স্থল পরিদর্শন করেছেন।

মুন্সিগঞ্জ টাইমস