ভোট দিতে না পেরে হতাশ মুন্সীগঞ্জ ৩ আসনের নতুন ভোটাররা

young-boys-girlsদশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মুন্সীগঞ্জ ৩ আসনের বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন এড মৃনাল কান্তি দাস। এমপি হওয়ার ক্ষেত্রে কোন ভোটার ভোট দিতে পারেনি। এখানে মোট ভোটার রয়েছে ৩ লাখ ৬২ হাজার ৫৭৩ টি। এতে সবছেয়ে বেশী হতাশ হয়েছেন মুন্সীগঞ্জ সদর ও গজারিয়ার তরুণ-তরুণীরা যারা এবার নতুন ভোটার হয়েছেন। এবার নতুন ভোটার হয়েছেন অন্তত ৪০ হাজার তরুণ-তরুণী। ভোটার হলেও ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারেননি বলে তারা বিক্ষুব্ধ।

তরুণ-তরুণীরা হতাশ হয়েছেন ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগরে একতরফা নির্বাচনের আয়োজন দেখে। হতাশ হয়েছেন বিএনপি-জামায়াত জোটের নির্বাচন বর্জন এবং হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের নির্বাচনী নাটকে! সর্বদলের অংশ গ্রহনে নির্বাচন না হওয়ায় গণতন্ত্র নিরবে কাঁদছে বলে অভিযোগ করেছেন। নাগরিক অধিকারও হরন করা হয়েছে বলে মন্তব্য তাদের।

ইমরান হোসেন গজারিয়া ১৮ বছর পূর্ণ হওয়ায় এবারই প্রথম ভোটার হয়েছেন। জানালেন, মনের মধ্যে একটা টানটান উত্তেজনা ছিল জীবনের প্রথম ভোট দেবেন। প্রয়োগ করবেন নিজের অধিকার। দেশের ভবিষ্যৎ বিনির্মাণের জন্যে প্রতিনিধি নির্বাচন করে পাঠাবেন মহান জাতীয় সংসদে। কন্তু ভোট না দিতে পেরে হতাশ তিনি।

কারন বিনা বাধায় মুন্সীগজঞ্জ ৩ আসনে জয় পেয়েছেন আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী। ইমরানের মত এমন অসংখ্য তরুণ-তরুণী এবার ভোট দিতে না পেরে হতাশ হয়েছেন।

দিকে তরুণ-তরুণীদের একটি অংশ মনে করছেন আশার আলো এখনও মিটি মিটি করে জ্বলছে। দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে আগামী ৫ জানুয়ারি। প্রধানমন্ত্রীর কথামতো প্রধান বিরোধী দল বিএনপি সমঝোতায় এলে জানুয়ারির মধ্যে এই সংসদ ভেঙে এপ্রিলে একাদশ সংসদ নির্বাচন হতে পারে। এই আশায় বুক বেধে আছেন তারা।

মুন্সিগঞ্জ টাইমস