মার্চ ফর ডেমোক্র্যাসিতে বিচ্ছিন্ন মুন্সীগঞ্জ

বিরোধীদলের মার্চ ফর ডেমোক্র্যাসির কর্মসূচিকে কেন্দ্র করে সরকারি অঘোষিত ধর্মঘটে সোমবারও রাজধানী থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে পুরো দক্ষিণবঙ্গ। রোববার দিবাগত মধ্যরাত থেকে মাওয়া রুটে ঢাকাগামী কোন ধরণের যানবাহন চলাচল করেনি। এতে করে রাজধানী ঢাকার প্রবেশমুখ মাওয়া ফেরিঘাট থেকে যাত্রীশূন্য অবস্থা বিরাজ করছে। একইসাথে মাওয়া-কাওড়াকান্দি নৌরুটেও মাওয়াগামী কোন নৌযান চলাচল করেনি। তবে ফেরিঘাটে কিছু হালকা যানবাহন ও ট্রাক পারাপার করা হচ্ছে।

এদিকে, ঢাকা-চটগ্রাম, ঢাকা-মাওয়া ও ঢাকা-মুন্সীগঞ্জ সড়কের বিভিন্ন পয়েন্টে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর শুরু হওয়া চেকপোস্ট বসিয়ে কড়া পাহাড়া সোমবারও অব্যাহত থাকায় ঢাকার দিকে কোন লোকজন প্রবেশ করতে দেখা যায়নি।

ওদিকে, সোমবার সকালের দিকে ঢাকা থেকে দক্ষিণবঙ্গগামী বেশকিছু যাত্রী মাওয়া হয়ে পদ্মা পারপার হলেও মাওয়া ঘাট দিয়ে দূরপাল্লার কোন বাস, হালকা যানবাহন ফেরি পারাপার হচ্ছে না। ফেরীতেও কোন যাত্রী মাওয়ার দিকে আসতে দেখা যায়নি। সোমবারও ঢাকা সড়ক পরিবহন শ্রমিক মালিক সমিতির পরিবহন ধর্মঘটে সমর্থন দিয়ে এবং প্রশাসনের নির্দেশে মাওয়া ঘাট পরিবহণ মালিক কল্যাণ সমিতি সড়কে কোন যানবাহন ছাড়ছেন না। এ কারণে মার্চ ফর ডেমোক্র্যাসি পালনকারী আঠারোদলীয় জোট নেতাকর্মীরা ঢাকায় প্রবেশ করতে বাধার সম্মুখীন হচ্ছে।

ঘাট সংশ্লিষ্ট একাধিক সূত্রে জানা গেছে, পুলিশের হয়রানি এড়াতে নানা কৌশল ও পন্থা অবলম্বন করে আগেভাগেই ফেরিতে ও ভেঙে ভেঙে ঢাকার দিকে চলে গেছে কিছু কিছু বিএনপির নেতাকর্মীরা। তবে যাত্রী ও চাকরিজীবী বেশে মাওয়া প্রান্ত দিয়ে ঢাকার দিকে ছুটে চলা অধিকাংশ লোকই ছিল দলীয় নেতাকর্মী। এছাড়া, দক্ষিণবঙ্গের পদ-পদবীর অধিকাংশ নেতা আরো ২-৩দিন আগেই ঢাকা চলে গেছেন ।

মুন্সীগঞ্জ বার্তা