ঢাকা-৪ আসনে সানজিদার মনোনয়ন প্রত্যাহারের দাবি

sanjidaঢাকা-৪ আসনে শ্যামপুর-কদমতলী থানায় আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী অ্যাডভোকেট সানজিদা খানমের মনোনয়ন প্রত্যাহারের দাবিতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে স্থানীয় থানা আওয়ামী লীগ ও এর সহযোগী সংগঠনগুলো।

রোববার দুপুরে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে সানজিদা খানমকে প্রত্যাহার করে অন্য যেকোনো ব্যক্তিকে মনোনীত করার দাবি জানিয়ে মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, “গত পাঁচ বছর সংসদ সদস্য থাকাকালীন সানজিদা খানম আমাদের জীবন অতিষ্ঠ করে তুলেছেন। তিনি মাঠ পর্যায়ের কর্মীদের মূল্যায়ন করেন না। আওয়ামী লীগের কর্মীদের বাদ দিয়ে তিনি স্থানীয় বিএনপি’র নেতাকর্মীদের সঙ্গেই সবসময়ে মিটিং-মিছিলে ব্যস্ত থাকেন এবং নিজ দলের হয়ে তিনি কোনো কাজ করেন না।”


সানজিদা খানম তার অঞ্চলকে মাদকের আখড়ায় পরিণত করেছেন বলেও অভিযোগ করেন বক্তারা। এছাড়া স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতা মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মুদুল্লাহকে অর্ধকোটি টাকা ব্যয় করে খুন করেছে বলেও অভিযোগ করেন তারা।

এ সময় মানববন্ধনে উপস্থিত কদমতলী থানার মহিলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহসভানেত্রী সাহারা জসিম বলেন, “সানজিদা খানমের কর্মকাণ্ডের বিরোধিতা করাতে তিনি প্রথমে আমাকে হুমকি দেন এবং তারপরেই আমার ছেলে, স্থানীয় যুবলীগের কর্মী, সাইফুল ইসলাম টিটুকে চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে উঠিয়ে নিয়ে যান। আমার ছেলের খোঁজ আমি এখনো পাইনি।”

কদমতলী থানার ৮৮ নং ওয়ার্ডের প্রেসিডেন্ট মাকছুদা বেগম বলেন, “সানজিদা খানমের মাদকের ব্যবসায়ে জড়িত থাকার বিরুদ্ধে আমি কথা বলায় তিনি আমার স্বামীকে নারী কেলেঙ্কারির মিথ্যা মামলায় ফাঁসান এবং আমার সন্তানকে কিডন্যাপ করেন।”

এ সময় উপস্থিত বক্তারা আরো বলেন, “সানজিদা খানমের এক ভাই যুবদলের বহিষ্কৃত সাংগঠনিক সম্পাদক ছিলেন। আরেক ভাই শিবিরের সঙ্গে জড়িত।”

ঢাকারিপোর্টটোয়েন্টিফোর