বিদ্যুৎতের আলো নেই, মুন্সীগঞ্জের মোল্লাবাড়ি গুচ্ছগ্রামে!!

aaaMunshigonjপ্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যখন তার সরকারের বিদ্যুৎ উৎপাদনের সাফল্য নিয়ে কোটি টাকা খরচ করে লেজার শো ও আতশবাজিতে উৎসব উদযাপন করছিলেন তখনও মোল্লাবাড়ি গুচ্ছগ্রামের শতাধীক শিক্ষার্থীরা বিদ্যুৎ বিহীন অবস্থায় কোপি জ্বালিয়ে পড়ালেখা করছিলো।

এমনটিই দৃশ্যচিত্র এখানকার। এর কারন, গুচ্ছগ্রামটি নির্মাণ করা হলেও এখানে আজও বিদ্যুৎতের আলো পৌছেনি। অন্ধকারের মধ্যেই বসবাস করতে হচ্ছে এখানে আশ্রয় নেয়া ৫০টি পরিবারকে। ২০১১ সালের ৮ মে মোল্লাকান্দি ইউনিয়নের ঢালীকান্দি গ্রামে ‘মোল্লাবাড়ি গুচ্ছগ্রাম প্রকল্পের’ কাজ সম্পন্ন হয়।

কিন্তু দীর্ঘ আঁড়াই বছর পেরিয়ে গেলো ও অসহায় দুঃস্থ পরিবার গুলো এখনো বিদ্যুৎতের আলো চোখে দেখেনি!


সরেজমিন খোঁজ নিয়ে জানা গেছে,এই প্রকল্পের অধীনে বিদ্যুৎ সংযোগ দেয়ার কথা উল্লেখ থাকলেও তা বাস্তবে এখনো কার্যকর হয়নি। এস,এস,সি পরীক্ষার্থী নূর হোসেন এই গুচ্ছগ্রামেই তাদের পরিবার নিয়ে বসবাস করছে। তার পিতা আবুল হোসেন ঢালী একজন দিনমজুর।

নূর হোসেন জানান, এখানে মাটি-ঘর পেয়ে আমরা অনেক খুশি। আশ্রয় পেয়েছি। কিন্তু আমাদের এখানে বিদ্যুৎ নেই। বিদ্যুৎ সংযোগ না থাকায় আমাদের পড়া লেখার অনেক অসুবিধা হচ্ছে। ঠিকমত লেখাপড়া করা সম্ভব হচ্ছে না । একই কষ্টের কথা উল্লেখ করলেন অষ্টম শ্রেণীর ছাত্রী হামিদা আক্তার, সুমাইয়া আক্তার ও আঁখি আক্তার। তাদের দাবী এবং প্রত্যাশা বর্তমান এই সরকার দ্রুত মোল্লাবাড়ি গুচ্ছগ্রামটিতে বিদ্যুৎ সংযোগ স্থাপন করবেন।
এদিকে মোল্লাবাড়ি গুচ্ছগ্রামে বিদ্যুৎ সংযোগ কেনো স্থাপন করা হয়নি এমন এক প্রশ্নের জবাবে এই প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটির সদস্য সচিব সহকারী কমিশনার(ভূমি) পুর্শিয়া আক্তার বলেন,মোল্লাবাড়ি গুচ্ছগ্রামটিতে বিদ্যুৎ সংযোগ লাগানোর ব্যাপারে শীঘ্রই উদ্যোগ নেয়া হবে।

তিনি দুঃখ প্রকাশ করে আরো বলেন, এতো সুন্দর একটি গুচ্ছগ্রাম নির্মাণ করা হয়েছে অথচ সেখানকার দুঃস্থলোকজন এই আধুনিক যুগে বিদ্যুৎতের আলো বঞ্চিত থাকবে বিষয়টি লজ্জাসকর।

অন্যদিকে সংশ্লিষ্ট সৃত্রে জানা গেছে, মুন্সীগঞ্জ জেলার সদর উপজেলার মোল্লাকান্দি ইউনিয়নের ঢালীকান্দিতে ৭.০৬ একর জমির উপর নির্মাণ করা হয় মোল্লাবাড়ি গুচ্ছগ্রামটি। এখানে গৃহহীন, ভূমিহীন মোট ৫০টি পরিবারকে পুনর্বাসিত করা হয়েছে।এই প্রকল্পটি বাস্তবায়নে প্রাপ্ত বরাদ্দ ছিলো ৬৪,২১,৫০০টাকা। ব্যয় ধরা হয় ৬৩,৯৬,১৬৬ টাকা।

উল্লেখ, মোল্লাবাড়ি গুচ্ছগ্রামটির নির্মাণ কাজ সুন্দরভাবে সম্পন্ন করেন বাংলাদেশ সেনাবাহিনী। এদিকে এ ব্যাপারে জেলা প্রশাসক (ডিসি)সাইফুল হাসান বাদল জানান,মোল্লাবাড়ি গুচ্ছগ্রামের বিদ্যুৎতের সংযোগ স্থাপনের কাজ প্রক্রিয়াধীন আছে। শীঘ্রই সে গ্রামে বিদ্যুৎ সংযোগ দেয়া হবে।

বাংলাপোষ্ট২৪