মুক্তারপুরে হেফাজতে ইসলাম ও পুলিশের মধ্যে সংঘর্ষে আহত ১৩, গ্রেফতার ৪

sমুন্সীগঞ্জ শহরের উপকন্ঠ মুক্তারপুর পুরাতন ফেরীঘাট এলাকায় শুক্রবার দুপুর ২ টার দিকে পুলিশ ও হেফাজতে ইসলামের কর্মীদের মধ্যে সংঘর্ষে অন্তত ১৩ জন আহত হয়েছে। এ সময় ৪ হেফাজত কর্মীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

পুরাতন ফেরীঘাট জামে মসজিদ থেকে জুমা নামাজের পর বিক্ষোভ মিছিল বের করার চেষ্টা চালালে হেফাজতে ইসলামের নেতাকর্মীদের বাঁধা দেয় পুলিশ। এক পর্যায়ে পুলিশের ব্যাড়িকেট উপেক্ষা করে হেফাজতের কর্মীরা সামনে এগুতে চাইলে পুলিশ তাতে লাঠিচার্জ করে।


পরে পুলিশ ও হেফাজতের কর্মীদের মধ্যে সংঘর্ষ বেঁধে যায় বলে জানিয়েছেন সদর থানার ওসি শহীদুল ইসলাম। তিনি জানান, পুলিশ-প্রশাসনের অনুমতি ছাড়াই হেফাজতে ইসলামের কর্মীরা পুরাতন ফেরীঘাট সংলগ্ন জামে মসজিদ থেকে জুমা নামাজের পর বিক্ষোভ মিছিল বের করতে চায়। পুলিশ শান্তিপূর্ণ পরিবেশ বজায় রাখতে মিছিলে বাঁধা দেয়।

শহর উপকন্ঠের মুক্তারপুর নৌ-ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই মো: সেলিম হেফাজতের ৪ কর্মীকে গ্রেফতারের সত্যতা নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন- লাঠিচার্জ করে হেফাজতের কর্মীদের ছত্রভঙ্গ করে দেওয়া হয়েছে। তবে এ মূহুর্তে তাদের পরিচয় জানাতে পারেননি তিনি।


হেফাজতের আহত ১৩ কর্মীকে বিভিন্ন স্থানে প্রাইভেট ক্লিনিকে চিকিৎসার জন্য নেওয়া হয়েছে বলে হেফাজতে ইসলামের নেতাকর্মীরা দাবী করে।

যমুনা নিউজ
=======

মুন্সীগঞ্জে হেফাজতের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ

মুন্সীগঞ্জ শহরের উপকন্ঠ মুক্তারপুর পুরাতন ফেরিঘাট এলাকায় পুলিশের সঙ্গে হেফাজতে ইসলামের কর্মীদের সংঘর্ষ হয়েছে। এতে অন্তত ১২ জন আহত হয়েছে।

শুক্রবার দুপুর আড়াইটার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

হেফাজতের আহত ১২ কর্মীকে বিভিন্ন প্রাইভেট ক্লিনিকে চিকিৎসার জন্য নেওয়া হয়েছে বলে হেফাজতে ইসলাম সূত্রে জানা গেছে। তবে তাদের নাম জানা যায়নি।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, মুক্তারপুর পুরাতন ফেরিঘাট জামে মসজিদ থেকে জুমার নামাজের পর বিক্ষোভ মিছিল বের করার চেষ্টা চালালে হেফাজতে ইসলামের নেতাকর্মীদের বাধা দেয় পুলিশ।


একপর্যায়ে পুলিশের ব্যাড়িকেড উপেক্ষা করে হেফাজতের কর্মীরা সামনে এগুতে চাইলে পুলিশ লাঠিচার্জ করে। এতে পুলিশ ও হেফাজতের কর্মীদের মধ্যে সংঘর্ষ বেঁধে যায়।

সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ওসি শহীদুল ইসলাম বাংলানিউজকে জানান, প্রশাসনের অনুমতি ছাড়াই হেফাজতে ইসলামের কর্মীরা পুরাতন ফেরিঘাট এলাকায় বিক্ষোভ মিছিল বের করতে চায়। পুলিশ শান্তিপূর্ণ পরিবেশ বজায় রাখতে মিছিলে বাঁধা দেয়।

শহর উপকন্ঠের মুক্তারপুর নৌ-ফাঁড়ির উপপরিদর্শক (এসআই) মো. সেলিম জানান, লাঠিচার্জ করে হেফাজতের কর্মীদের ছত্রভঙ্গ করে দেওয়া হয়েছে।

তিনি আরও জানান, হেফাজতের চার কর্মীকে আটক করা হয়েছে। তবে তিনি আটকদের পরিচয় জানাতে পারেননি।

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর