মুন্সীগঞ্জে ৭ দিনেও মিলেনি আসাদের লাশ

aaaMunshigonjমুন্সীগঞ্জে ধলেশ্বরী থেকে ৫ নভেম্বর সিমেন্ট বোঝাই ট্রলারের ৪ শ্রমিককে হত্যা করে ছিনতাই হওয়া সিমেন্ট বোঝাই ট্রলারটি বরগুনা থেকে এবং মুন্সীগঞ্জ থেকে নিহত ৩ শ্রমিকের লাশ উদ্ধার হলেও নিহত ট্রলার শ্রমিক আসাদের লাশ সোমবার পর্যন্ত উদ্ধার করা যায়নি। আসাদ ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বাঞ্ছারামপুর উপজেলার কানাইনগর গ্রামের মঈন খান এর পুত্র। তবে বাকি ৩ জনের লাশ ইতোমধ্যে মুন্সীগঞ্জ থেকে উদ্বার করা হয়েছে।


বৃহস্পতিবার শহরের বেড়িবাধ এলাকায় ধলেশ্বরী থেকে শরীয়তপুরের সখিপুর থানার মাঝিকান্দি গ্রামের আব্দুল আজিজের পুত্র মহিউদ্দিন (৩৫) নামের লাশ উদ্ধার করা হয়। এ ছাড়া শনিবার বিকেলে মুন্সীগঞ্জ জেলার গজারিয়ার উপজেলার চর-রমজানবেগ এলাকার মেঘনা নদী থেকে অপর দুই লাশ ট্রলারের সুকানি ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নূরু মাঝি (৪৫) ও ওই একই ট্রলারের মাঝি একই এলাকার জাকির হোসেন (৩৫) মরদেহ উদ্ধার করা হয়। একই দিনে বরগুনা থেকে ছিনতাই হওয়া ওই ট্রলারটি ৩ ছিনতাইকারীসহ আটক করা হয়।

উল্লেখ্য, গত ৫ নভেম্বর মুন্সীগঞ্জ জেলার পঞ্চসার ইউনিয়নের মুক্তারপুর এলাকার এমিরেট্স সিমেন্ট কারখানা থেকে ১ হাজার ৩২ ব্যাগ সিমেন্ট বোঝাই করে কিশোরগঞ্জের ভৈরবে যাওয়ার পথে মুন্সীগঞ্জের ধলেশ্বরী নদীতে ছিনতাইকারীদের কবলে পড়ে ওই ট্রলারটি। ছিনতাইকারীরা ট্রলারে থাকা ৪ জন শ্রমিককে হত্যা করে ট্রলারটি ছিনতাই করে নিয়ে যায়।

এবিনিউজ