মুন্সীগঞ্জে বিএনপির মিছিল, বাসে আগুন

hartalমুন্সীগঞ্জে পুলিশের সঙ্গে বিএনপি নেতাকর্মীদের ধস্তাধস্তি, যাত্রীবাহী বাসে আগুন ও বেশ কয়েকটি যানবাহন ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছে। ১৮ দলীয় জোটের ডাকা টানা ৬০ ঘণ্টা হরতালের শেষ দিন বুধবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত জেলা শহর ও গজারিয়া উপজেলায় পৃথক স্থানে এসব ঘটনা ঘটে।

এছাড়া, মুন্সীগঞ্জ শহরে বিএনপি ও শ্রীনগরে আওয়ামী লীগ বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, সকাল ১০টার দিকে জেলা বিএনপির সভাপতি ও সাবেক উপমন্ত্রী আব্দুল হাইয়ের নেতৃত্বে শহরের থানারপুল এলাকাস্থ দলীয় কার্যালয় থেকে হরতালের সমর্থনে একটি মিছিল বের হয়।

মিছিলটি শহরের পুরাতন কাচারীর দিকে রওনা দিলে ব্যারিকেড দেয় পুলিশ। এ সময় পুলিশের ব্যারিকেড ভেঙে হরতাল সমর্থকরা সামনের দিকে গেলে বিএনপি কর্মীদের সঙ্গে পুলিশের ধস্তাধস্তির ঘটনা ঘটে।

এছাড়া সকাল ১১টার দিকে পিকেটাররা শহরের হরগঙ্গা কলেজ রোড এলাকায় ২টি অটোরিকশা ভাঙচুর করে। এ সময় মুন্সীগঞ্জ-মুক্তারপুর সড়কে টায়ারে আগুন জ্বালিয়ে যানবাহন চলাচলে বাধা দেয় তারা।

সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. শহীদুল ইসলাম এসব তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করে বাংলানিউজকে জানান, হরতালে কোনো অরাজকতা মেনে নেওয়া হবে না। সুশৃঙ্খল ও শান্তিপূর্ণ মিছিল করতে বাধা নেই।

অন্যদিকে, বুধবার ভোরে গজারিয়া উপজেলার বাউশিয়া এলাকায় সজীব পেট্রোল পাম্পের সামনে গজারিয়া পরিবহনের একটি বাসে আগুন দেওয়ার ঘটনা ঘটেছে। এতে বাসটি সম্পূর্ণ পুড়ে যায়।

তবে, কে বা কারা এ ঘটনা ঘটিয়েছে তা সনাক্ত করা সম্ভব হয়নি বলে জানিয়েছেন গজারিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মামুন উর রশীদ।

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর