মুন্সীগঞ্জে জামায়াত কর্মী সন্দেহে আটক ৩

jamayat-logo20131013014255মুন্সীগঞ্জ শহরের সার্কিট হাউজ সংলগ্ন আর্দশ মাদ্রাসার আবাসিক ছাত্রাবাস থেকে জামায়াত-শিবিরের কর্মীকে সন্দেহে তিনজনকে আটক করেছে পুলিশ। শুক্রবার বেলা সাড়ে ১১টা থেকে ১২টা পর্যন্ত অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয়।

আটকরা হলেন, ওই মাদ্রাসার শিক্ষক আব্দুল হাকিম (৫৬), বহিরাগত মো. সাখাওয়াত হোসেন (৩৩) ও মাদ্রাসার ছাত্র মো. জাহিদুল (১৮)।

পুলিশ আটকদের জামায়াত-শিবিরের সক্রিয় কর্মী বলে দাবি করেছে। তবে তা অস্বীকার করেছেন ওই মাদ্রাসার অধ্যক্ষ।


সদর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) সিদ্ধার্থ সাহা বাংলানিউজকে জানান, শহরের সার্কিট হাউজ সংলগ্ন মুন্সীগঞ্জ আদর্শ মাদ্রাসার আবাসিক ছাত্রাবাসে জাময়াত-শিবিরের গোপন বৈঠকের খবর পেয়ে পুলিশ সেখানে অভিযান চালায়। এ সময় তিনজনকে আটক করা হয়। তাদের থানা হেফাজতে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

তিনি আরও জানান, মুন্সীগঞ্জ আর্দশ মাদ্রাসাটি জামায়াতের নিয়ন্ত্রণে পরিচালিত হয়ে আসছে। এখান থেকেই জামায়াত-শিবিরের নেতাকর্মীরা নাশকতামূলক কর্মকাণ্ড পরিচালনা করে বলে এসআই দাবি করেন।

মুন্সীগঞ্জ আর্দশ মাদ্রাসার অধ্যক্ষ সৈয়দ মাহবুবুর রহমান দাবি করেন আটকরা কেউ জামায়াত-শিবিরের কর্মী নয়। তিনি জানান, তাদের একজন মাদ্রাসার শিক্ষক, একজন ছাত্র এবং অপরজন বহিরাগত। ছাত্রাবাসে বসে কথা বলার সময় পুলিশ তাদের আটক করে।

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর