প্রধানমন্ত্রীকে হত্যা করতে চেয়েছিল

joy3মোজাম্মেল হোসেন সজল: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছেলে সজীব ওয়াজেদ জয় বলেছেন, বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের আমলে দেশে সন্ত্রাস ও জঙ্গীবাদ ছিল। কয়েক দিন পরপর আদালতে, সিনেমা হলসহ বিভিন্ন স্থানে বোমা হামলা হতো। তারা প্রধানমন্ত্রীকে হত্যা করতে চেয়েছিলেন।

তিনি বলেন, বোমা হামলা চালিয়ে দেশের সাবেক অর্থমন্ত্রী কিবরিয়াকে হত্যা করা হয়েছে। ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা চালিয়ে আওয়ামী লীগ সভাপতি ও বর্তমান প্রধানমন্ত্রীকে (শেখ হাসিনা) হত্যা করতে চেয়েছিল বিএনপি-জামায়াত জোট সরকার।

শুক্রবার বেলা সাড়ে ১১ টার দিকে গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়া যাওয়ার পথে মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগরে ও লৌহজংয়ের মাওয়া চৌরাস্তায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে সজীব ওয়াজেদ জয় এসব কথা বলেন।
joy3
বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের বিভিন্ন তথ্য তুলে ধরে সজীব ওয়াজেদ জয় বলেন, গত চারদলীয় জোট সরকারের আমলে সন্ত্রাস ও বোমা হামলা হলেও বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকারের আমলে কোনো সন্ত্রাস নেই, বোমা হামলাও নেই। আওয়ামী লীগ সরকার তা হতে দেয়নি।

তত্ত্বাবধায়ক সরকার প্রসঙ্গে জয় বলেন, বিগত অনির্বাচিত তত্ত্বাবধায়ক সরকার দেশে যে নির্যাতন চালিয়েছিল তা এখনও দেশবাসীর মনে আছে। বিনা কারণে মিথ্যা মামলা দিয়ে তার মাকে (শেখ হাসিনা) আটক করে রেখেছিল। তিনি বলেন, সেই অনির্বাচিত শক্তি যাতে আবার ফিরে না আসে সে জন্য সর্বদলীয় নির্বাচিত সরকার গঠনের প্রস্তাব দেয়া হয়েছে। আওয়ামী লীগ বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের সঙ্গে সংলাপ অব্যাহত রেখেছে।

সজীব ওয়াজেদ জয় বলেন, গত সাড়ে ৪ বছরে বাংলাদেশের যে উন্নয়ন হয়েছে, ৭৫ সালের পর কোন সরকারের আমলে এমন উন্নয়ন হয়নি। তাই নৌকা মার্কায় আবারও ভোট দিয়ে উন্নয়নের ধারাবাহিতা অব্যাহত রাখার আহ্বান জানান তিনি।

তিনি বলেন, পাকিস্তানি ও এর দোসর যারা মুক্তিযুদ্ধের সময় দেশে গণহত্যা চালিয়ে ৩০ লাখ মানুষকে হত্যা করেছে, সেই দোসরদের বিএনপি চেয়ারপারসন দেশের মন্ত্রী বানিয়েছিলেন। ৭১ সালে নাকি মুক্তিযোদ্ধারা দেশে গণহত্যা চালিয়েছিল বলে তিনি মিথ্যা প্রচার চালাচ্ছেন।


মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগরের ছনবাড়ীর পথসভায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন মুন্সীগঞ্জ-১ আসনের সংসদ সদস্য সুকুমার রঞ্জন ঘোষ, আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির উপ-দফতর সম্পাদক মৃণাল কান্তি দাস, নজরুল ইসলাম বাবু এমপি, সাবেক ছাত্রলীগ সভাপতি এনামুল হক শামীম, বর্তমান সভাপতি বদিউজ্জামান সোহাগ।

এছাড়া মাওয়া চৌরাস্তায় পথসভায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন মুন্সীগঞ্জ-২ আসনের সংসদ সদস্য ও জাতীয় সংসদের হুইপ সাগুফতা ইয়াসমিন এমিলি, জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মোয়াজ্জেম হোসেন ঢালী, লৌহজং উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রশীদ সিকদার প্রমুখ।

এমটিনিউজ২৪
========

সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ নির্মূল করতে নৌকা মার্কায় ভোট দিন – সিরাজদিখানে পথসভায় সজিব ওয়াজেদ জয়

ব.ম শামীম: সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ নির্মূল করতে আগামী নির্বাচনে নৌকা মাকায় ভোট দিন। গত জোট সরকারের আমলে রমনার বটমূলে, ময়মনসিংহের সিনেমা হলে ও ২১ শে আগষ্ট গ্রেনেড হামলাসহ অনেক অপকর্ম জোট সরকার করেছে। এখোন তারা হরতালের নামে বোমাবাজি করে মানুষ হত্যা করে চলেছে। বর্তমান প্রধান মন্ত্রী আমার মা বিরোধীদলীয় নেত্রীকে ফোন করেছিলেন আগামী নির্বাচন বিষয়ে আলাপ করার জন্য কিন্তু ওনি আমার মায়ের সাথে ঝগড়া করেছেন।

শুক্রবার সকাল সাড়ে ১০ টায় ঢাকা হতে গোপালগঞ্জ যাওয়ার পথে সিরাজাদিখানের নিমতলা নামক স্থানে পথসভায় বক্তব্যে এ সমস্ত কথা বলেন, প্রধানমন্ত্রী পুত্র সজিব ওয়াজেদ জয়। এ সময় পথ সভায় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত থেকে বক্তব্যরাখেন, আওয়ামীলীগের উপ-দপ্তর সম্পাদক মৃনাল কান্তি দাস, স্থাণীয় এমপি সুকুমার রঞ্জণ ঘোস , নজরুল ইসলাম খান বাবু এমপি, মুন্সীগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মহিউদ্দিন আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক লুৎফর রহমান, আওয়ামীলীগের কেন্দ্রিয় উপ-কমিটির সহ সম্পাদক গোলাম সারোয়ার কবির প্রমূখ।

========

গ্রেনেড হামলা নিয়ে মিথ্যাচার করছেন খালেদা

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছেলে ও তার আইটি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয় বলেছেন, ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা নিয়ে বিরোধী দলীয় নেত্রী মিথ্যাচার শুরু করেছেন।

তিনি আরো বলেন, হাওয়া ভবনে বসে তারেক রহমানের পরিকল্পনা করার পর সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী লুৎফরজামান বাবরসহ একটি চক্র আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যা করতে গ্রেনেড হামলা চালিয়েছিলো। মুফতি হান্নান আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক সাক্ষী দিয়েছেন এবং এ মামলার চার্জশিটে তারেক রহমানের নাম থাকলেও বিরোধী দলীয় নেতা খালেদা জিয়ার মিথ্যাচার সবাইকে আশ্চর্য করেছে।

শুক্রবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে গোপালগঞ্জের টুঙ্গীপাড়া যাওয়ার পথে মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগর ও লৌহজংয়ের মাওয়া চৌরাস্তায় আয়োজিত পথসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে সজীব ওয়াজেদ জয় এসব কথা বলেন।

সজীব ওয়াজেদ জয় বলেন, গত সাড়ে ৪ বছরে বাংলাদেশের যে উন্নয়ন হয়েছে, ৭৫ সালের পর কোনো সরকারের আমলে এমন উন্নয়ন হয়নি।

তিনি বলেন, বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের আমলে দেশে সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ ছিলো। কয়েক দিন পরপর আদালত, সিনেমা হলসহ বিভিন্ন স্থানে বোমা হামলা হতো। বোমা হামলা চালিয়ে দেশের সাবেক অর্থমন্ত্রী কিবরিয়াকে হত্যা করা হয়েছে। ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা চালিয়ে আ’লীগ সভাপতি ও বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যা করতে চেয়েছিল বিএনপি-জামায়াত জোট সরকার।

বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের বিভিন্ন তথ্য তুলে ধরে জয় বলেন, গত ৪ দলীয় জোট সরকারের আমলে সন্ত্রাস ও বোমা হামলা হয়েছে। কিন্তু বর্তমান আ’লীগ সরকারের আমলে কোনো সন্ত্রাস নেই, বোমা হামলাও নেই। আ’লীগ সরকার তা হতে দেয়নি।

তত্ত্বাবধায়ক সরকার প্রসঙ্গে জয় বলেন, বিগত অনির্বাচিত তত্ত্বাবধায়ক সরকার দেশে যে নির্যাতন চালিয়েছিলো তা এখনও দেশবাসীর মনে আছে। সে সময় বিনা কারণে মিথ্যা মামলা দিয়ে আমার মাকে (শেখ হাসিনা) আটকে রাখা হয়েছিলো।

তিনি বলেন, সেই অনির্বাচিত শক্তি যাতে আবার ফিরে না আসে সেজন্য সর্বদলীয় নির্বাচিত সরকার গঠনের প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে। এছাড়া সর্বদলীয় নির্বাচিত সরকার গঠন করতে আ’লীগ বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের সঙ্গে সংলাপ অব্যাহত রেখেছে।

জয় বলেন, মুক্তিযুদ্ধের সময় যারা দেশে গণাহত্যা চালিয়ে ৩০ লাখ মানুষকে হত্যা করেছে, সেই পাকিস্তানি ও তাদের দোসরদের খালেদা জিয়া মন্ত্রী বানিয়েছেন। ১৯৭১ সালে মুক্তিযোদ্ধারা দেশে গণহত্যা চালিয়েছিলো বলেও মিথ্যা প্রচার চালাচ্ছেন তিনি।

শ্রীনগরের ছনবাড়ি এলাকায় পথসভায় আরো বক্তব্য রাখেন- মুন্সীগঞ্জ-১ আসনের সংসদ সদস্য (এমপি) সুকুমার রঞ্জন ঘোষ, আ’লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির উপ দফতর সম্পাদক মৃনাল কান্তি দাস, নজরুল ইসলাম বাবু এমপি, সাবেক ছাত্রলীগ সভাপতি এনামুল হক শামিম, বর্তমান সভাপতি বদিউজ্জামান সোহাগ প্রমুখ।

এছাড়া মাওয়া চৌরাস্তার পথসভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন- মুন্সীগঞ্জ-২ আসনের এমপি ও জাতীয় সংসদের হুইপ সাগুফতা ইয়াসমিন এমিলি, জেলা আ’লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মোয়াজ্জেম হোসেন ঢালী ও লৌহজং উপজেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক রশীদ সিকদার।

মহিউদ্দিন মাহমুদ, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট ও কাজী দীপু, ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট
বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর
==============

বিএনপি-জামায়াত আমলে দেশে সন্ত্রাস ও জঙ্গীবাদ ছিল, হয়েছে বোমা হামলা
শ্রীনগর ও মাওয়ায় সজীব ওয়াজেদ জয় বলেন

মোঃ রুবেল ইসলাম: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছেলে সজীব ওয়াজেদ জয় বলেছেন, বিএনপি- জামায়াত জোট সরকারের আমলে দেশে সন্ত্রাস ও জঙ্গীবাদ ছিল। কয়েক দিন পরপর আদালতে, সিনেমা হলসহ বিভিন্ন স্থানে বোমা হামলা হতো। বোমা হামলা চালিয়ে দেশের সাবেক অর্থমন্ত্রী কিবরিয়াকে হত্যা করা হয়েছে। ২১ আগষ্ট গ্রেনেড হামলা চালিয়ে আ’লীগ সভাপতি ও বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যা করতে চেয়েছিল বিএনপি জামায়াত জোট সরকার।

শুক্রবার বেলা সাড়ে ১১ টার দিকে গোপালগঞ্জের টঙ্গিপাড়া যাওয়ার পথে মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগরে ও লৌহজংয়ের মাওয়া চৌরাস্তায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে সজীব ওয়াজেদ জয় এসব কথা বলেন।

বিএনপি জামায়াত জোট সরকারের সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের বিভিন্ন তথ্য তুলে ধরে সজীব ওয়াজেদ জয় বলেন, গত চার দলীয় জোট সরকারের আমলে সন্ত্রাস ও বোমা হামলা হলেও বর্তমান আ’লীগ সরকারের আমলে কোন সন্ত্রাস নেই, বোমা হামলাও নেই। আ’লীগ সরকার তা হতে দেয়নি।

তত্ত্বাবধায়ক সরকার প্রসঙ্গে জয় বলেন, বিগত অনির্বাচিত তত্ত্বাবধায়ক সরকার দেশে যে নির্যাতন চালিয়েছিল তা এখনও দেশবাসীর মনে আছে। বিনা কারনে মিথ্যা মামলা দিয়ে তার মাকে (শেখ হাসিনা) আটক করে রেখেছিল। তিনি বলেন, সেই অনির্বাচিত শক্তি যাতে আবার ফিরে না আসে সে জন্য সর্বদলীয় নির্বাচিত সরকার গঠনের প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে। এছাড়া সর্বদলীয় নির্বাচিত সরকার গঠন করতে আ’লীগ বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের সঙ্গে সংলাপ অব্যাহত রেখেছে।


সজীব ওয়াজেদ জয় বলেন, গত সাড়ে ৪ বছরে বাংলাদেশের যে উন্নয়ন হয়েছে, ৭৫ সালের পর কোন সরকারের আমলে এমন উন্নয়ন হয়নি। তাই নৌকা মার্কায় আবারও ভোট দিয়ে উন্নয়নের ধারাবাহিতা অব্যাহত রাখার আহবান জানান সজীব ওয়াজেদ জয়।

খালেদা জিয়া বলেছেন, পাকিস্তানী ও এর দোসর যারা মুক্তিযুদ্ধের সময় দেশে গনহত্যা চালিয়ে ৩০ লাখ মানুষকে হত্যা করেছে, সেই দোসরদের খালেদা জিয়া দেশের মন্ত্রী বানিয়ে এখন ৭১ সালে নাকি মুক্তিযোদ্ধারা দেশে গনহত্যা চালিয়েছিল বলে মিথ্যা প্রচার চালাচ্ছে।

মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগরের ছনবাড়ি এলাকায় পথসভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন মুন্সীগঞ্জ-১ আসনের সংসদ সদস্য সুকুমার রঞ্জন ঘোষ, আ’লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির উপদফতর সম্পাদক মৃনাল কান্তি দাস, নজরুল ইসলাম বাবু এমপি, সাবেক ছাত্রলীগ সভাপতি এনামুল হক শামিম, বর্তমান সভাপত বদিউজ্জামান সোহাগ। এছাড়া মাওয়া চৌরাস্তায় পথসভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন মুন্সীগঞ্জ-২ আসনের সংসদ সদস্য ও জাতীয় সংসদের হুইপ সাগুফতা ইয়াসমিন এমিলি, জেলা আ’লীহের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মোয়াজ্জেম হোসেন ঢালী, লৌহজং উপজেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক রশীদ সিকদার প্রমুখ।