মিরাপাড়ায় দীর্ঘদিন ধরে বিদ্যুত বন্ধ থাকায় জনদুর্ভোগ এখন চরমে

aaaMunshigonjট্রান্সমিটার চুরি
মুন্সীগঞ্জ সদর থানার মিরকাদিম পৌরসভার মিরাপাড়া এলাকার মোহসিন মাখন এর বাড়ীর কাছ থেকে দুটি বিদ্যুতের ট্রান্সমিটার চুরি হয়ে গেছে। চলন্ত লাইন থাকাবস্থায় কি করে চোর দুটি ট্রান্সমিটার চুরি হতে পারে তা নিয়ে এখন আলোচিত হচ্ছে। জেলায় অহরহ ট্রান্সমিটার চুরি হলেও তা রোধে কোন কার্যকর পদক্ষেপ লক্ষ্য করা যাচ্ছে না। মিরাপাড়া এলাকার ট্রান্সমিটার দুটি চুরি হয়ার পর থেকে অনেক দিন অতিবাহিত হলেও আজোও সিপাহীপাড়া এলাকার পল্লী বিদ্যুত সমিতি তা আর সংযোগ দেয়নি। তারা এখন মোটা অঙ্কের টাকা দাবী করছে সংযোগ দিতে।


দীর্ঘদিন ধরে বিদ্যুত না পেয়ে এলাকার একটা বিশাল জনগোষ্টীর ফ্রিজ থেকে শুরু করে মটর দিয়ে পানি উত্তোলন না করতে পেরে মানবেতর জীবন যাপন করছে। অনেকেই আবার বাড়ী-ঘর ছেড়ে অন্যত্র আশ্রয় নিয়েছে। এলাকাবাসীর প্রশ,œ পল্লী বিদ্যুতের ট্রান্সমিটার চুরি হলে তার দায় কার? এখন কেন গ্রাহকদের কাছ থেকে মোটা টাকা দাবী করা হচ্ছে ট্রান্সমিটার সংযোগ দিতে।


তবে অনেকেই ধারনা করছেন, বিদ্যূতের ট্রান্সমিটিার চুরির সাথে পল্লী বিদ্রূতের এক শ্রেণীর কর্মকর্তা জড়িত। লাইন থাকাবস্থায় সাধারন চোরের পক্ষে তা লাইন কেটে জনবহল এলাকা থেকে সরানো সম্ভব নয়। একটি এলাকায় যদি দীর্ঘদিন ধরে বিদ্যুত না না থাকে তাহলে মানুষের জীবনে কি দুর্বিষহ অবস্থা নেমে আসে তা না দেখলে বলা সম্ভব নয়। তাই মুন্সীগঞ্জ জেলার পল্লী বিদ্যুত সমিতিকে অতি সত্ত্বর ট্রান্সমিটার সংযোগ দিয়ে মানুষকে দুর্ভোগ হাত থেকে রেহাই দিতে অনুরোধ করা হচ্ছে।

সাপ্তাহিক মুন্সীগঞ্জের বাণী

One Response

Write a Comment»
  1. Polli Biddut all employees are goon. Without their help hard to steal transmitter. They should be punished by local people cause how long they will suffer.They got the audacity to ask money as a bribe for replant. All polli employees from top level manager to line worker should go to jail. It is crystal clear that law & order enforcement people have no concern. They have been keep ignoring this matter for ages.Solution is “Tit for Tat”.