ঢাকায় থাকার প্রস্তুতি মুন্সীগঞ্জ বিএনপির

কাল ২৫শে অক্টোবরের সমাবেশকে ঘিরে মুন্সীগঞ্জ জেলা বিএনপি ব্যাপক প্রস্তুতি নিয়েছে। যে কোন মূল্যে তারা ওইদিনের কর্মসূচি সফল করে দেশ তাদের নিয়ন্ত্রণে নেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন। তাদের দাবি ২৫শে অক্টোবরের পর দেশে কয়েকদিনের লাগাতার অবরোধ কর্মসূচি দেয়া হচ্ছে।

এদিকে, ঢাকার পাশের জেলা মুন্সীগঞ্জ বিএনপির শীর্ষ নেতারা জেলা ও ঢাকায় লোক সমাগমের দু’রকমের টার্গেট নিয়ে মাঠ পর্যায়ে কাজ করছেন।


ঢাকায় বসবাসরত জেলার দলীয় নেতাকর্মীদের সেখান থেকেই সমাবেশে অংশ গ্রহণ ও জেলা থেকেও দলীয় নেতাকর্মীরা আগেই ঢাকায় পৌঁছে স্বজনদের বাড়িতে অবস্থান নেবেন। আর যারা ঢাকায় যেতে পারবেন না তারা এলাকায় অবস্থান নিয়ে কাজ করে যাবেন। আর কেন্দ্র থেকে তাৎক্ষণিক কোন কর্মসূচি দেয়া হলে তারা তা সফল করবেন। এ নিয়ে কোন বাধা এলে তা প্রতিরোধ করা হবে। এমন তথ্যই দিয়েছেন মুন্সীগঞ্জ জেলা বিএনপির সভাপতি ও বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির স্থানীয় সরকার ও সমবায় বিষয়ক সম্পাদক মো. আবদুল হাই।

ওদিকে, এ দিনকে ঘিরে কেন্দ্র থেকে কোন দিক-নির্দেশনা না থাকায় জেলা আওয়ামী লীগ বিএনপির এ কর্মসূচিতে কোন বাধা বা প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করবেন বলে না জানা গেছে।

মুন্সীগঞ্জ জেলা বিএনপির সভাপতি ও সাবেক সংসদ সদস্য আবদুল হাই ঢাকারিপোর্টটোয়েন্টিফোর. কমকে বলেন, ঢাকায় সমাবেশে অংশ নিতে মুন্সীগঞ্জের দলীয় নেতাকর্মী-সমর্থকদের দু’স্তরে ভাগ করা হয়েছে। একটি অংশ থাকবে মুন্সীগঞ্জে, আরেক অংশ যাবে ঢাকায়। এছাড়া ঢাকায় বসবাসরত দলীয় নেতাকর্মী-সমর্থকরা জেলায় না এসে সেখান থেকে সমাবেশে অংশ নেবেন।

২৫শে অক্টোবরের কর্মসূচি যে কোন মূল্যে সফল করা হবে বলেও তিনি জানান।

তিনি আরো জানান, যারা ঢাকার কর্মসূচিতে যাবেন তারা কয়েকদিনের প্রস্তুতি নিয়ে যাচ্ছেন। লাগাতার কর্মসূচি দেওয়া হলে ঢাকার রাজপথেই তাদের থাকতে হতে পারে।

জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আলী আজগর মল্লিক রিপন বলেন, নিষেধাজ্ঞার পরও আমরা সমাবেশ করবো। আগামী ২৫ শে অক্টোবরের পর দেশ আমরা চালাবো। আওয়ামী লীগ-পুলিশকে দেশ চালাতে দেয়া হবে না। একটি গণতান্ত্রিক দেশে পুলিশ কোন সভা-সমাবেশ নিষিদ্ধ করতে পারে না।

তিনি আরো বলেন, গত ১৯ শে অক্টোবর ঢাকায় জেলা নেতাদের নিয়ে বৈঠকে জেলা বিএনপির পক্ষ থেকে এক সপ্তাহের অবরোধ কর্মসূচি দেয়ার মতামত জানানো হয়েছে।


জেলা বিএনপির প্রথম যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আতোয়ার হোসেন বাবুল বলেছেন, মানুষের মৌলিক অধিকার হরণ করে সরকার-পুলিশ কোন সভা-সমাবেশ নিষিদ্ধ করতে পারে না-এটা আমরা মানিও না। আমরা ঢাকায় সমাবেশ করবোই। এছাড়া, ওইদিনের পর শহরে জেলা বিএনপির দলীয় কার্যালয়ের কাছে আওয়ামী লীগের কোন মিছিল এলে তা প্রতিরোধ করা হবে।

এ ব্যাপারে মুন্সীগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ শেখ লুৎফর রহমান বলেন-বিএনপির সমাবেশ ঠেকাতে আমরা মুন্সীগঞ্জে কোন পাল্টা কর্মসূচি দেইনি। কেন্দ্র থেকে সে রকম কোন নির্দেশনাও আমরা পাইনি। পরবর্তীতে কোন নির্দেশনা এলে আমরা তা পালন করবো।

ঢাকারিপোর্টটোয়েন্টিফোর