কাকে তুলে নিয়ে গেল ওরা?

aaaMunshigonjমোজাম্মেল হোসেন সজল: কাকে তুলে নিয়ে গেল ওরা। ওরাই বা কারা। এমন প্রশ্ন এখন মুন্সীগঞ্জ আদালত পাড়ার আইনজীবী ও শহরবাসীর মুখে মুখে। বুধবার বেলা সাড়ে ১১ টার দিকে মুন্সীগঞ্জ আদালত পাড়ার ঈদগা সংলগ্ন প্রধান সড়ক থেকে এক ব্যক্তিকে তুলে নিয়ে যাওয়া হয়।

মাইক্রোবাসে তাকে তুলে নিয়ে যায় অজ্ঞাত ব্যক্তিরা। ওই সড়কের মাত্র ১৫-২০ হাত দূরে জেলা ও দায়রা জজ আদালত, জজ সাহেবের বাসভবন, মুন্সীগঞ্জ জেলা প্রশাসকের কার্যালয়, বাসভবন ও ১শ’ হাত দূরে মুন্সীগঞ্জ পুলিশ সুপারের কার্যালয়। অসংখ্য আইনজীবী ও পথচারীদের সামনে অজ্ঞাত পরিচয়ের এক ব্যক্তিকে অজ্ঞাত ব্যক্তিরা মাইক্রোবাসে তুলে নিয়ে শহর দিয়ে চলে যায়। পুলিশকে এ ঘটনা অবহিত করা হলেও তারা কোনো পদক্ষেপ ও প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়নি বলে প্রত্যক্ষদর্শীদের অভিযোগ। প্রকাশ্যে এ ধরনের কিডন্যাপের ঘটনায় মুন্সীগঞ্জ আদালত পাড়ায় এখন আতঙ্ক বিরাজ করছে।


তাদের প্রশ্ন, অপহরণকারীরা কারা? অপরিচিত ওই ব্যক্তিইবা কে? তাকে কোথায় নিয়ে গেল অপহরণকারীরা? তার ভাগ্যেই বা এখন কি ঘটছে? সে জীবিত আছে নাকি তাকে হত্যা করে গুম করে ফেলা হচ্ছে? ওরা কি আইনের লোক নাকি কিলার-এমন প্রশ্ন এখন শহরজুড়ে বইছে।

মুন্সীগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট মাসুদ আলম, জুনিয়র আইনজীবী আরিফুর রহমান খান ও মালপাড়ার রেজাউল আবেদীন পলাশসহ কয়েকজন প্রত্যক্ষদর্শী জানান, বুধবার বেলা সাড়ে ১১ টার দিকে শহর থেকে ৪৫-৪৮ বছর বয়সী সাদা পাঞ্জাবী ও চাপ দাড়িওয়ালা ফর্সা রংয়ের এক ব্যক্তি পালসার মোটরসাইকেল চালিয়ে কাঁটাখালী রোড়ের দিকে যাচ্ছিলেন।

এসময় পেছন দিকে থেকে কালো রংয়ের একটি মাইক্রোবাস মোটরসাইকেল ঘেঁষে তার পথরোধ করে। মাইক্রোবাস থেকে ৪০-৪৫ বছর বয়সী ৪-৫ ব্যক্তি নেমে ওই ব্যক্তিকে তুলে মাইক্রোবাস ভরে নিয়ে শহরের দিকে চলে যায়।


মোটরসাইকেলটি রাস্তায় পড়ে থাকে। ঘটনার ১০মিনিট পর ৩-৪ যুবক এসে মোটরসাইকেলটি শহরের দক্ষিণ দিকে নিয়ে যায়।

এ ব্যাপারে মুন্সীগঞ্জ সদর থানার অফিসার ইনচার্জ মো. শহীদুল ইসলাম জানান, বিষয়টি শুনেছি। নাম-পরিচয় জানা যায়নি। তবে জমি সংক্রান্ত ঘটনায় এ ঘটনা ঘটে থাকতে পারে বলে তিনি জানান।

এমটিনিউজ২৪