সন্তান কেড়ে নেয়ার মামলা এসআইয়ের বিরুদ্ধে

courtঘুমন্ত অবস্থায় মায়ের বুক থেকে শিশু সন্তান কেড়ে নেয়ার ঘটনায় বৃহস্পতিবার দুপুরে মুন্সীগঞ্জ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মুন্সীগঞ্জ সদর থানা-পুলিশের এক এসআইয়ের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা দায়ের করা হয়েছে। একই মামলায় বাদী তার শ্বশুরকে দ্বিতীয় আসামী করেন।

শিশু সন্তান আপন দাসের (২ বছর ৬ মাস) মা রিতা রানী দাস বাদী হয়ে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ১ নম্বর আমলী আদালতে এ মামলা দায়ের করেন। এতে ২ জনকে আসামী করা হয়। প্রধান আসামী করা হয়েছে- সদর থানার (এসআই) সিদ্ধার্থ সাহা ও বাদী তার শ্বশুর অমর রঞ্জন বাছারকে দ্বিতীয় আসামী করেন।


মা রীতা রানী দাস দাবী করেন- তার স্বামী অনন্ত বাছারের সঙ্গে দাম্পত্য কলহ চলছে। ওই কলহের জের ধরে বুধবার দিবাগত রাতে মুন্সীগঞ্জ সদর থানার (এসআই) সিদ্ধার্থ সাহা ও শ্বশুর অমর রঞ্জন শহরের হাটলক্ষ্মীগঞ্জ এলাকায় তার বাপের বাড়িতে আসেন। এ সময় তিনি শিশু সন্তান আপনকে বুকে নিয়ে ঘুমিয়ে থাকেন। আকস্মিক পুলিশ ও তার শ্বশুর বুকের শিশুকে কেড়ে নিয়ে পালিয়ে যায়। বাধ্য হয়ে বৃহস্পতিবার আদালতে মামলা দায়ের করেন তিনি। বাদী রীতা রানী দাস শহরের হাটলক্ষ্মীগঞ্জ এলাকার মাখন চন্দ্র দাসের মেয়ে। প্রায় ৪ বছর আগে মুন্সীগঞ্জ সদর উপজেলার বানিয়াল মহেশপুর গ্রামের অমর রঞ্জন বাছরের ছেলে অনন্ত বাছারের সঙ্গে শহরের হাটলক্ষ্মীগঞ্জ এলাকার মাখন চন্দ্র দাসের মেয়ে রীতা রানী দাসের বিয়ে হয়।

এবিনিউজ