ট্রাক চালককে মারধর, ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক অবরোধ

মেঘনা টোল প্লাজার টোল আদায়কারীদের হামলার প্রতিবাদে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে ব্যারিকেড দিয়ে যানবাহন চলাচল বন্ধ করে দিয়েছে ট্রাকের চালক ও হেলপাররা।

এতে মহাসড়কের ২০ কিলোমিটার এলাকা জুড়ে যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। শুক্রবার ভোর সাড়ে ৪টার দিকে ব্যারিকেড দেওয়ার পর থেকে সকাল সোয়া ১০টা পর্যন্ত অবস্থা অপরিবর্তীত ছিল।

মেঘনা সেতু এলাকা থেকে মহাসড়কের পূর্ব দিকে ভবেরচর পর্যন্ত ও পশ্চিমে নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁও এলাকা পর্যন্ত ২০ কিলোমিটার এলাকায় যানজট ছড়িয়ে পড়েছে।


স্থানীয় সূত্র জানায়, ভোর ৪টার দিকে কুমিল্লাগামী পণ্য বোঝাই একটি ট্রাক ওজন স্টেশনে যায়। এসময় ওজন বেশি থাকায় ট্রাক যেতে দিতে না চাইলে ওজন স্টেশনের কর্মচারীদের সঙ্গে ট্রাক চালকদের কথা কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে টোল আদায়কারী ও ওজন স্টেশনের লোকজন ট্রাক চালক ও হেলপারদের মারধর করে। এতে চালক ও হেলপারসহ পাঁচজন আহত হয়।

ভবেরচর ফাঁড়ির পুলিশ জানায়, এ ঘটনার জের ধরে ট্রাক চালকরা আড়াআড়িভাবে ট্রাক রেখে মহাসড়কে যান চলাচল বন্ধ করে দিয়েছে। ফলে যানজটের সৃষ্টি হয়েছে।

ভবেরচর ফাঁড়ির হাইওয়ে পুলিশের সার্জেন্ট মো. সাইফুল ইসলাম শুক্রবার সকাল সোয়া ১০টার দিকে জানান, ব্যারিকেড তুলে দিয়ে যানজট নিরসনের চেষ্টা চলছে।

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর