জীবিতকে মৃত দেখিয়ে ব্যবসায়ীকে নির্যাতন

aaaMunshigonjজীবিত এক ব্যক্তিকে মৃত দেখিয়ে আবুল কাশেম নামে এক ব্যবসায়ীকে নির্মম নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে পুলিশের বিরুদ্ধে। এমনকি তাকে বৈদ্যুতিক শক ও রাতভর নির্যাতন করেছে বলে অভিযোগ করেছেন নির্যাতিত ব্যবসায়ীর পরিবার।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর সেগুনবাগিচায় বাংলাদেশ ক্রাইম রিপোর্টাস বহুমুখী সমবায় সমিতি কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এ অভিযোগ করেন আবুল কাশেমের বৃদ্ধ বাবা তাছির আলী ও মা আমিরুন নেছা।

লিখিত বক্তব্যে তাছির আলী বলেন, জোরপূর্বক স্বীকারোক্তি আদায়ের জন্য প্লাস দিয়ে তার ছেলের হাতের নক তুলে নিয়েছে। এক মাস ধরে মিথ্যা মামলার বোঝা নিয়ে ব্যবসায়ী তার ছেলে বর্তমানে জেল হাজতে রয়েছে।

তিনি বলেন, মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখান উপজেলার খাশমহল বালুচরের আকবর নগর গ্রামের গোলাম হোসেনের ছেলে উজ্জ্বল হোসেন গত ২৯ আগস্ট নারায়ণগঞ্জ কাশিপুর থেকে নিখোঁজ হন। ঘটনায় জড়িত সন্দেহে পরে উজ্জ্বলের ব্যাবসায়িক অংশীদার আবুল হাশেমকে গ্রেফতার করে পুলিশ।


পরে আবুল হাশেমকে থানায় নিয়ে নির্মম নির্যাতন চালায় পুলিশ। গত ১০ সেপ্টেম্বর অজ্ঞাত একটি বেওয়ারিশ লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। লাশটি উজ্জ্বলের বলে দাবি করেন বড় ভাই মিলন হোসেন। ময়নাতদন্ত শেষে লাশটি পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করে নিহতের পরিবার। ১৯ সেপ্টেম্বর নিখোঁজ উজ্জ্বলকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ৩১৫ নম্বর ওয়ার্ডের বারান্দায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় পাওয়া যায়।

তাছির আলী বলেন, উজ্জ্বলকে মৃত ঘোষণা করে আমার ছেলে আবুল হাশেমের বিরুদ্ধে মিথ্যা হত্যা মামলা দিয়ে পুলিশ নির্যাতন চালিয়েছে। এমনকি জীবিত উজ্জ্বলকে মৃত দেখিয়ে আমার ছেলেকে হত্যা মামলার প্রধান আসামী বানিয়ে পোস্টার করে গ্রামের প্রতিটি স্থানে সাঁটানো হয়েছে।

উজ্জ্বল ও তার পরিবার প্রকাশ্যে গ্রামে ঘুরাফেরা করছে এবং আমাদের হুমকি দিচ্ছে। বেশি কথা বললে আমাদের গ্রাম ছাড়া করবে বলেও শাসিয়েছে। আমি আমার ছেলের বিরুদ্ধে এই মিথ্যা মামলা দায়েরকারীদের বিচার চাই।

ঢাকারিপোর্টটোয়েন্টিফোর