আটক ওদলা সেলিমের অপকর্ম

Odla-Selim-Munshiganjমুন্সীগঞ্জ শহরের অজানা আতঙ্কের নাম সেলিম ওরফে ওদলা সেলিম। পুরো নাম সাইফুল ইসলাম সেলিম (৪২)। মুন্সীগঞ্জ সদর থানার তালিকাভুক্ত সন্ত্রাসী তিনি। সেই ওদলা সেলিম প্রায় সাড়ে ৩ মাস আত্মগোপনে থাকার পর অবশেষে আজ সোমবার রাতে গ্রেপ্তার হন।

রাত ৭টার দিকে শহরের নিজ বাড়ি সংলগ্ন কোর্টগাঁও এলাকা থেকে মুন্সীগঞ্জ সদর থানা পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে। চাঁদা দাবি, হত্যা ও ধর্ষণের হুমকির অভিযোগে গত ১৯ জুন মধ্যরাত ১২টা ১০ মিনিটের সময় ওদলা সেলিমের বিরুদ্ধে সদর থানায় মামলা নথিভুক্ত হলে ওদলা আত্মগোপনে চলে যায়।

সে সময় ওদলা সেলিম গুম হয়ে গেছে বলে শহরের গুঞ্জন ছড়িয়ে পড়ে। ওদলা বাড়ি দখল, ব্যাংক দখল, জমি দখলসহ নানা রকম অপরাধের সঙ্গে জড়িত বলে সদর থানার পুলিশ জানিয়েছে।


মুন্সীগঞ্জ সদর থানা পুলিশ জানায়, শহরের এইচ কে জেড সেটেলাইট টিভি কেবলসের স্বত্বাধিকারী খায়রুল কবির সরকার বাদী হয়ে গত ১৯ জুন ওদলা সেলিমের বিরুদ্ধে সদর থানায় মামলা দায়ের করেন।

মামলায় তিনি উল্লেখ্য করেন, গত ১৩ জুন রাত সাড়ে ৯টার দিকে শহরের প্রধান সড়কের গদা বাবুর বিল্ডিংয়ের দ্বিতীয় তলার একটি কক্ষে গিয়ে ওদলা সেলিম তার কাছে ক্ষতিপূরণ বাবদ ১৩ লাখ টাকা দাবি করে।

পুলিশ ওদলাকে গ্রেপ্তার করায় এর জন্য খায়রুল কবিরকে দায়ী করে ওদলা। ওই টাকা ১৫ জুনের মধ্যে দেয়া না হলে খায়রুলকে হত্যা করে লাশ গুম করে ফেলা ও তার স্ত্রীকে তার সামনে ধর্ষণ করার হুমকি দেয় ওদলা।

একই সময় খায়রুলের সঙ্গে থাকা ১০ হাজার টাকা জোরপূর্বক লুটে নেয় ওদলা। এদিকে টঙ্গিবাড়ি থানার ওসি (তদন্ত) মো. খলিলুর রহমান জানান, ওদলা সেলিমের বিরুদ্ধে টঙ্গিবাড়ি থানায় ২টি ডাকাতি মামলা রয়েছে। এছাড়া দখলবাজদের বাড়ি ও জমি দখলেও ভাড়া হিসেবে কাজ করে ওদলা সেলিম।

এমটিনিউজ২৪