শ্রীনগরে শরীরে আগুন ধরিয়ে স্কুলছাত্রীর আত্মহত্যার চেষ্টা

aaaMunshigonjটিফিনের টাকা না দেয়ায় মায়ের ওপর অভিমান করে মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগরে শম্পা আক্তার (১১) নামে এক স্কুলছাত্রী নিজ শরীরে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছে। এ ঘটনার পর শম্পাকে শ্রীনগর ষোলঘর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হলে সেখান থেকে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে স্থানান্তর করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৮ টার দিকে উপজেলার বীরতারা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। শম্পা একই গ্রামের শহীদ মিয়ার মেয়ে। সে মজিদপুর দয়াহাটা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণীর ছাত্রী।


এলাকাবাসী জানায়, সকালে শম্পা স্কুলে যাওয়ার সময় মায়ের কাছে টিফিনের জন্য টাকা চায়। এসময় তার মা তাকে টাকা না দিয়ে বকাঝকা করে। এতে শম্পা অভিমান করে বসতঘরে গিয়ে ঘরে থাকা কেরোসিন শরীরে ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়। এতে শম্পার শরীর শরীর ঝলছে যায়। স্বজনরা শরীর থেকে আগুন নিভিয়ে তাকে হাসপাতালে নিয়ে যায়।

ঢাকা নিউজ এজেন্সি
============

মায়ের ওপর অভিমান করে স্কুলছাত্রীর আত্মহত্যার চেষ্টা

মায়ের ওপর অভিমান করে মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগরে নিজ শরীরে কেরোসিন ঢেলে আগুন লাগিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা চালিয়েছে শম্পা আক্তার (১১) নামে এক স্কুলছাত্রী।

বৃহস্পতিবার সকাল ৯টার দিকে উপজেলার বীরতারা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনার পর পরিবারের সদস্যরা শম্পাকে উদ্ধার করে প্রথমে শ্রীনগরের ষোলঘর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও পরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করেছে বলে জানা গেছে।


শম্পা বীরতারা গ্রামের শহীদ মিয়ার মেয়ে ও স্থানীয় মজিদপুর দয়াহাটা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণীর ছাত্রী।

স্থানীয় সূত্র জানায়, বৃহস্পতিবার সকালে শম্পা স্কুলে যাওয়ার সময় মায়ের কাছে টিফিনের টাকা চায়। এসময় তার মা টাকা না দিয়ে তাকে বকাঝকা ও মারধর করেন। এতে শম্পা অভিমান করে বসতঘরে গিয়ে সেখানে থাকা কেরোসিন শরীরে ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়।

এসময় পরিবারের লোকজন ও প্রতিবেশীরা এগিয়ে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণ করলেও শম্পার শরীর ঝলছে যায়।

শ্রীনগর থানার সহকারী উপ পরিদর্শক (এএসআই) মো. মহসিন আরিফ জানান, বিষয়টি থানা পুলিশকে কেউ অবগত করেনি।

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর