সিরাজদিখানে আ’লীগ ও যুবলীগের ৭ নেতার বিরুদ্ধে মামলা

aaaMunshigonjদলীয় কোন্দলের জের
সিরাজদিখানে যুবলীগের আহ্বায়ক কমিটি গঠন নিয়ে বিরোধের জের ধরে ইউনিয়ন আ’লীগ সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ ৭ জনকে আসামী করে মামলা রুজু করা হয়েছে। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে উপজেলা আ’লীগ ও যুবলীগ নেতাকর্মীদের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে। এছাড়া এ ঘটনায় আ’লীগ ও যুবলীগ নেতৃবৃন্দ তীব্র নিন্দা জানিয়ে অবিলম্বে এ মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবী জানিয়েছেন।


জানা গেছে, গত ৬ সেপ্টেম্বর উপজেলার কোলা ইউনিয়ন যুবলীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হওয়ার পর এদিন সন্ধ্যায় নব-নির্বাচিত কমিটির নেতৃবৃন্দ ও যুবলীগের সাংগঠনিক কর্মকান্ড নিয়ে কটুক্তি অপর মহিউদ্দিন সমর্থক কর্মীরা। এতে দলীয় নেতাকমীরা উপজেলার চেয়ারম্যান মহিউদ্দিন আহম্মেদের সমর্থিত ক্যাডার টিটুকে মারধর করা হয়। যুবলীগ কর্মীরা জানান, এ ঘটনার ১০ দিন পর মহিউদ্দিন আহমেদের ক্যাডার টিটুর ভাই তাহের শেখ বাদী হয়ে সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির আহবায়ক ও সাবেক ছাত্রনেতা জাহাঙ্গীর খান বাবু, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি খালেক বেপারী, সাধারন সম্পাদক তারন দেওয়ান, ও ইউনিয়ন যুবলীগের নব-নির্বাচিত সভাপতি মাসুদ রানাসহ সাত নেতাকে আসামী করে আদালতে একটি অভিযোগ দায়ের করে। এতে আদালত অভিযোগটি তদন্ত এফআইআর ভুক্ত করার জন্য সিরাজদিখান থানার ওসিকে নির্দেশ দেন।

এ প্রসঙ্গে সিরাজদিখান থানার ওসি মো. আবুল বাসার জানান, গত ২১ সেপ্টেম্বর আদালতের নির্দেশনা পেয়ে পরদিন ২২ সেপ্টেম্বর অভিযোগ মামলায় নথিভূক্ত করা হয়েছে।

অন্যদিকে যুবলীগ নেতাকমীরা জানান, নেতৃবৃন্দের নামে মামলা রুজু হওয়ায় উপজেলা আ’লীগ ও যুবলীগ নেতাকর্মীদের মধ্যে বর্তমানে উত্তেজনা বিরাজ করছে। এ নিয়ে যে কোন সময় অপ্রীতিকর ঘটনার আশঙ্কা করা হচ্ছে।

আলোকিত বাংলাদেশ