পদ্মার পানি বিপদসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে

মুন্সীগঞ্জের ভাগ্যকুল পয়েন্টে পদ্মা নদীর পানি বুধবার সকাল থেকে বিপদসীমার ৩০ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। এছাড়া পদ্মার পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকায় গত তিন দিনে ৫০ সেন্টিমিটার পানি বৃদ্ধি পেয়েছে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে।

অন্যদিকে, পদ্মায় অস্বাভাবিক পানি বৃদ্ধির কারণে নদী তীরবর্তী মুন্সীগঞ্জের লৌহজং, শ্রীনগর ও টঙ্গিবাড়ী উপজেলার নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হচ্ছে।

বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্রের অনলাইন ওয়েব পোর্টাল সূত্রে জানা গেছে, পদ্মার ভাগ্যকুল পয়েন্টে মঙ্গলবার ১২ সেন্টিমিটার পানি বৃদ্ধি পেয়ে বিপদসীমার ২২ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হয়। বুধবার সকালে বৃদ্ধি পায় আরো ৮ সেন্টিমিটার। ফলে বুধবার সকাল থেকে পদ্মায় বিপদসীমার ৩০ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে পানি প্রবাহিত হচ্ছে।


পানি উন্নয়ন বোর্ডের মুন্সীগঞ্জের উপ বিভাগীয় প্রকৌশলী মো. আমজাদ হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

বিআইডব্লিউটিএ-এর মাওয়া বন্দর কার্যালয়ের সহকারী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মহিউদ্দিন জানান, তিনদিন ধরে পদ্মার পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকায় মাওয়া নৌরুটে সব ধরনের নৌযান চলাচল বিঘ্নিত হচ্ছে। সেই সঙ্গে দেখা দিয়েছে ভাঙন।

বিআইডব্লিউটিসির মাওয়া কার্যালয়ের সহকারী মহাব্যবস্থাপক এসএম আশিকুজ্জামান জানান, পদ্মায় পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকায় মাওয়া প্রান্তের তিনটি ফেরিঘাট পন্টুন ও র‌্যাম সংলগ্ন সংযোগ সড়ক তলিয়ে যাওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর