কর্তৃপক্ষের অবহেলায় প্রসূতীর মৃত্যুর অভিযোগ: ক্লিনিক ভাংচুর

মুন্সীগঞ্জে ব্যক্তি মালকানাধীন একটি কিনিকে কর্তৃপক্ষের অবহেলায় সোনিয়া আক্তার (২৫) নামে এক প্রসূতীর মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনার জের ধরে কিনিকে হামলা চালিয়ে ভাংচুর করেছে প্রসূতীর স্বজনরা। পরে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। শুক্রবার সকালে মুন্সীগঞ্জ শহরের মানিকপুর-মুক্তারপুর সড়কের ডক্টরস কিনিকে এ ঘটনা ঘটে।


সোনিয়ার স্বজনরা অভিযোগ করেন বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় প্রসূতী সোনিয়াকে সিজার করা হলে একটি কন্যা সন্তার জন্ম দেয় সে। তবে সিজারের পর থেকেই সোনিয়ার প্রচুর রক্তক্ষরন হতে থাকে। বিষয়টি সুরাহা না করেই দায়িত্বরত চিকিৎসক ডা. নাজিয়া আক্তার দায়িত্বে অবহেলা করে অপর আরেকটি কিনিকে সিজার করতে চলে যান। পরে কিনিক কর্তৃপক্ষ বিষয়টি নিয়ে নানা টালবাহানা শুরু করে। এতে করে সারারাত অধিক রক্ষক্ষরনের কারণে সকালে সোনয়িার মৃত্যু হয়। সোনিয়ার স্বামীর বাড়ী মুন্সীগঞ্জের গজারিয়া উপজেলা। সে তার স্বামী মিজানুর রহমান মিজন এর সাথে মুন্সীগঞ্জ শহরের খালইষ্টের একটি ভাড়া বাড়ীতে থাকতেন।

বাংলাপোষ্ট২৪