বোনসহ যুবদল নেতা ছুরিকাহত

মোজাম্মেল হোসেন সজল: মুন্সীগঞ্জে মাদক বেচাকেনায় বাধা দেয়ায় প্রতিপক্ষের সন্ত্রাসীরা যুবদল নেতা ও তার বোনকে ছুরিকাহত করেছে। গুরুতর আহত শহর যুবদলের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক হুমায়ুন কবীর (৩৫)-কে মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

অপর আহত যুবদল নেতার বোন আকলিমা (৪০)-কে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। শুক্রবার বেলা পৌনে ১২ টার দিকে শহরের পাঁচঘড়িয়াকান্দি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।


হাসপাতালে চিকিৎসারত যুবদল নেতা হুমায়ুন কবীর জানান, পাঁচঘড়িয়াকান্দি গ্রামে স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর (৯ নম্বর ওয়ার্ড) যুবলীগ নেতা জাকির ও তার স্বজনদের নেতৃত্বে দীর্ঘদিন ধরে মাদক বেচাকেনা চলছে। এতে বাধা দেয়ায় শুক্রবার বেলা পৌনে ১২ টার দিকে ঘর থেকে বেরিয়ে রাস্তায় এলে জাকিরের হুকুমে তার ভাগিনা মাহমুদুল হাসান সাগর ও তার সৎভাই আল-আমিন গং আমাকে অস্ত্র নিয়ে হত্যা করার জন্য তেড়ে আসে। এ সময় আমি জীবন বাঁচাতে দৌড়ে বাড়িমুখী হই। বাড়িতে গিয়েই কাউন্সিলর জাকিরের ভাগিনা মাহমুদুল হাসান সাগর ও তার সৎভাইসহ ৮-১০ জনের একদল মাদক সন্ত্রাসী হামলা চালিয়ে আমার শরীরে উপর্যুপরি ছুরিকাঘাত করে। এ সময় আমার বোন এগিয়ে এলে তাকেও মারধর ও হাতে ছুরিকাঘাত করে।

এ ব্যাপারে মুন্সীগঞ্জ সদর থানার সেকেন্ড অফিসার সুলতান আহমেদ জানান, এ ব্যাপারে থানায় কোন অভিযোগ দায়ের করা হয়নি। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এদিকে এ সংবাদ লেখার সময় রাত সোয়া ৭টায় গুরুতর আহত যুবদল নেতা হুমায়ুন বাদী হয়ে কাউন্সিলর জাকির হোসেন, ভাগিনা মাহমুদুল হাসান সাগর, সৎভাই আল-আমিনসহ ৫জনকে এজাহারনামীয় আসামি করে সদর থানায় মামলা দায়ের করার প্রস্তুতি নিচ্ছেন বলে জানা গেছে।

ঢাকারিপোর্টটোয়েন্টিফোর