আড়াই লাখ টাকার শাড়ী ও ২ লাখ টাকার লেহেঙ্গায় হই-চই

সামসুল হুদা হিটু: ক্রেতা-বিক্রেতার দম ফেলার ফুসরত নেই, শপিং-মল ও বিপনী বিতানে শত ব্যস্ততা আর উপড়ে পড়া ঢলের চিত্রই বলে দেয়, শহর জুড়ে বসেছে ঈদের হাট। জমজমাট ঈদ বাজারের দৃশ্যপট। ছোট্ট এ শহরে কেনাকাটায় ক্রেতার স্বাচ্ছন্দ্যই প্রধান্য পাচ্ছে। পন্যের মান পরখ করে নিতে পুরো এক সকাল কিংবা পুরো এক বিকেল পাড় করে দিচ্ছেন একেক ক্রেতা-রাজধানীর সবচেয়ে কাছের মফস্বল শহর মুন্সীগঞ্জে এমনই নান্দনিক ছোঁয়া লেগেছে। ঈদের বাজারে হইচই ফেলে দিয়েছে আড়াই লাখের শাড়ি ও ২ লাখ টাকা দামের লেহেঙ্গা।

সাপ্তাহিক ছুটির দিনসহ শহরের মার্কেট, শপিং মল ও বিপনী বিতান গুলোতে নেমেছে ক্রেতা সাধারনের উপচে পড়া ঢল। আড়াই লাখ টাকা দামের শাড়ি ও প্রায় ২ লাখ টাকা দামের লেহেঙ্গা তুলে ঈদের বাজার মাত করে দিয়েছে জেলা শহরের প্রধান বাজার সংলগ্ন নিশাদ ক্লথ ষ্টোর। বিকি হোক না হোক ক্রেতার নজর কাঁড়তেই তাদের এই আয়োজন। ইতিমধ্যে ১ লাখ ৮৩ হাজার টাকা দামের একটি লেহেঙ্গা বিক্রি হয়ে গেছে। আড়াই লাখ টাকা দামের শাড়ি বিক্রি না হলেও রমনীদের হাতে ছোঁয়া লাগছে প্রতিক্ষনে-প্রতিদিনই।


৩ দিন আগে নিশাদ ক্লথ ষ্টোর ১ লাখ ৮৩ হাজার টাকা দামের একটি লেহেঙ্গা বিক্রি করেন বলে জানিয়েছেন নিশাদ ক্লথ ষ্টোরের কর্ণধার মো: খোকন মিয়া। তিনি জানান, সদর উপজেলার চরাঞ্চলের বাংলাবাজার গ্রামের এক ইতালি প্রবাসীর স্ত্রী বোম্বে পলু নামীয় ১ লাখ ৮৩ হাজার টাকার ওই লেহেঙ্গাটি কিনে নিয়েছেন। পরিচয় গোপন করার অনুরোধ রয়েছে লেহেঙ্গার ক্রেতার। তিল ধারনের ফাঁকা জায়গা নেই বিপনী বিতান-শপিংমলে।

শুক্রবার বেলা ১২ টা থেকে দুপুর দেড়টা পর্যন্ত সরেজমিনে ঈদ বাজারেরমেন দৃশ্য চোখে পড়েছে। দিনরাত মিলেমিশে একাকার এখন শহরের মোল্লা ক্লথ ষ্টোর, পিন্ধন, আনিলা ফ্যাশন, পাল ক্লথ ষ্টোর, বিশাল ডিপার্টমেন্টাল ষ্টোর, মিহিকা ডিপার্টমেন্টাল ষ্টোরসহ আরো বেশ কয়েকটি নামী-দামী পোশাক বিক্রির প্রতিষ্ঠান। শহরের ইসলাম মার্কেট, আমেনা মোল্লা মার্কেট, ডাচ বাংলা ব্যাংকের নীচে দেওয়ান প্লাজা, জেলা পরিষদ মার্কেট, শহর জামে মসজিদ মার্কেট, ইউরো প্লাজায় এখন দম ফেলার ফুসরত নেই।


শহরের জিএইচ সিটি সেন্টারের কারুপন্য বিপনী বিতানের স্বত্বাধিকারী আহসান হাবীব চঞ্চলের মুখে ঈদ বাজারের এই চিত্র উঠে আসে। ঈদ বাজারে মেয়েদের প্রিয় পোশাক হয়ে উঠেছে আশিকি টু ও কারিনা। ভারতীয় হিন্দি সিরিয়ালের নায়িকাদের নামেও ঈদের বাজারে মেয়েদের পোশাক বেশ সাড়া জাগিয়েছে। আর ছেলেদের কেনাকাটায় পাঞ্জাবী, ফতুয়া, টি-শার্ট, জিন্স প্যান্ট ও গেঞ্জিই পছন্দ বেশী। নামী-দামী বিপনী বিতান ছাপিয়ে শহর-শহরতলীর ফুটপাতেও জমেছে ঈদের বাজার। কেনাকাটায় লেগেছে বেশ ধুম।

ওয়ান নিউজ