স্কুল শিক্ষকের সহ-ধর্মিনী তৌহিদাকে বাঁচাতে এগিয়ে আসুন

stদুরারোগ্য স্তন ক্যান্সার আক্রান্তদের বাঁচাতে চিকিৎসা বিজ্ঞানের আবিস্কৃত সর্বশেষ পথ্য “টাইর্ক্যাব ওরাল থেরাপি” দিতে একজন স্কুল শিক্ষকের ৩০ লাখ টাকা দরকার। বন্ধু-রাষ্ট্র ভারতের মুম্বাই শহরের টাটা মেমোরিয়াল হাসপাতালে স্তন ক্যান্সারের ওই থেরাপি দিতে এক একবার ব্যয় হয় অন্তত ৭ লাখ টাকা। মুন্সীগঞ্জ শহরের জমিদার পাড়া এলাকার বাসিন্দা স্বল্প বেতনভোগী এক স্কুল শিক্ষকের সহ-ধর্মিনীকে বাঁচাতে কমপক্ষে ৪ বার “টাইর্ক্যাব ওরাল থেরাপি” দেওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন টাটা মেমোরিয়াল হাসপাতালের ক্যান্সার বিশেষজ্ঞরা।


দুরারোগ্য ক্যান্সারকে জয় করতে হলে সদর উপজেলার আধারা ইউনিয়নের বকুলতলা এম খালেক উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক আব্দুল আউয়ালের দরকার এখন ৩০ লাখ টাকা। এ টাকা জোগান দিতে না পারলে ওই স্কুল শিক্ষকের সহ-ধর্মিনী তৌহিদা আক্তার রিপনাকে বাঁচানো যাবে না।
প্রিয় সহ-ধর্মিনীকে বাঁচাতে ওই স্কুল শিক্ষক এবার বিত্তবানদের কাছে হাত পেতেছেন। ক্যান্সারে আক্রান্ত সহ-ধর্মিনীর জীবন বাঁচাতে ভারতের মুম্বাই শহরের টাটা মেমোরিয়াল হাসপাতালে ইতিমধ্যে যে পরিমানের অর্থ-ব্যয় হয়েছে-তা জোগান দিতে সহায়-সম্পত্তি বিক্রি করে দিয়েছেন স্কুল শিক্ষক। দিশেহারা হয়ে তিনি জনদরদীদের দৃষ্টি কামনা করছেন। সাহায্য পাঠানোর ঠিকানা:-মো: জামাল হোসাইন সঞ্চয়ী হিসাব নং-৪০০১১০১৯০৫০৩১০০১ (অনলাইন) ব্রাক ব্যাংক, মুন্সীগঞ্জ শাখা। মোবাইল নং-০১৯১৪৯০৫৬২৫ এবং ০১৭১৬২২৪৭১৭।

টাইমস্ আই বেঙ্গলী