সিরাজদিখানে সন্ত্রাসী হামলা : সাংবাদিকসহ আহত ৫

জমির সীমানার বিরোধকে কেন্দ্র করে মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখানে দুই সাংবাদিকসহ একই পরিবারের ৫ জন আহত হয়েছেন। গুরুতর আহত দৈনিক যুগান্তরের উপজেলা প্রতিনিধি সুব্রত দাস রওনক (৩৭), তার ছোট ভাই ভোরের কাগজের উপজেলা প্রতিনিধি দেবব্রত দাস দেবু (৩২), মা গীতা রানী দাস (৬০), চাচাতো ভাই সুরিন্দ্র চন্দ্র দাস (৪৫) ও ভাতিজা শুভ (২০)-কে ইছাপুরা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ভর্তি করা হয়েছে। শুক্রবার বিকেল ৫টার দিকে সিরাজদিখান উপজেলার রশুনিয়া ইউনিয়নের সন্তোষপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।


সাংবাদিক সুব্রত দাস রওনক জানান, উপজেলার সন্তোষপাড়ার জীবন দাস গংয়ের সঙ্গে তাদের ৩৯ শতাংশ জমি নিয়ে বিরোধ চলে আসছে। এ নিয়ে শুক্রবার সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত দু’পক্ষ নিজস্ব আমিন নিয়ে বিরোধ নিস্পত্তি করতে সিরাজদিখান উপজেলার চেয়ারম্যান মহিউদ্দিন আহমেদ, রশুনিয়া ইউপি চেয়ারম্যান ইকবাল হোসেন ও লতুব্দি ইউপি চেয়ারম্যান হাফেজ ফজলুল হক দুপুরে উভয়পক্ষকে নিয়ে বসলেও বিরোধ নিস্পত্তি না করেই জীবন দাস ও তার ছেলে রিপন গং ঘটনাস্থল ত্যাগ করেন।

পরে বিকেল ৫টার দিকে আগে থেকেই ওৎপেতে থাকা রিপন দাস ও জীবন দাসের নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী দেশিয় অস্ত্র নিয়ে সাংবাদিক পরিববারের উপর হামলা চালায়। এসময় সন্ত্রাসীদের অস্ত্রের আঘাতে সাংবাদিক দুভাই ও তাদের মা গীতা রানী দাস, চাচাতো ভাই সুরিন্দ্র চন্দ্র দাস ও ভাতিজা শুভ গুরুতর আহত হয়। আহতাবস্থায় তাদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেঙে ভর্তি করা হয়েছে।


এ ব্যাপারে সিরাজদিখান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবুল বাসারের সাথে যোগাযোগ করলে ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, অভিযোগ দেয়ার পর তদন্ত পূর্বক জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

জাস্ট নিউজ