চরাঞ্চলে ঈদকে সামনে রেখে সন্ত্রাসী কর্মকান্ড বৃদ্ধি

ঈদকে সামনে রেখে চরাঞ্চলে সন্ত্রাসী কর্মকান্ড বেরে যাওয়ায় সাধারন জনগন উদ্দ্যেগ প্রকাশ করতে দেখা গেছে। জানা যায় রমজানের পরঈদ আমরা ঈদের কেনা কাটা করতে সিএনজি যোগে মুন্সিগঞ্জ শহরে যাওয়ার পথে ছিনতাইসহ মহিলাযাত্রীদের শ্লথ হানির ঘটনা ঘটে যাছ্ছে। চরাঞ্চলে পুলিশের তেমন তৎপরতা নাই বললে চলে। এদিকে চরাঞ্চলের ৫টি ইউনিয়নের প্রতিটি পরিবারথেকে কেউনা কেউ প্রবাসে রয়েছে। সামনে ঈদ প্রবাস থেকে পরিবারের জন্য টাকা সহ বিভিন্ন উপহার পাঠাছ্ছে এতে করে সন্ত্রাসী চাঁদাবাজদের চাঁদা বাজির মাত্রা আরো বাড়িয়ে দিয়েছে বলে জানান চরাঞ্চলের একাধিক সাধারন জনগন।


চরাঞ্চলের বাংলাবাজার ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান গোলাম মর্তূজা সরকার সরেকার জানান, সামনে ঈদ আমাদের লোজনের নিরাপাত্তার জন্য চরাঞ্চলের রাস্তাতে প্রশাষনের নজরদারি প্রয়োজন। আধারা ইউনিয়র ইটালি প্রবাসি জসিমউদ্দিন টেলিফোনে দৈনিক খবরপত্রের প্রতিবেদককে জানান, প্রতিবছরই আমি ৫০হাজার টাকা ঈদের মধ্যে ক্ষমতাসীনদলের মাস্তানদের চাঁদা দিয়ে থাকি তানা হলে আমার স্ত্রী,ওসন্তানতানা হলে আমার মাবাবর প্রতি অত্যাচার শুরু হয়ে যাবে। প্রশাষনের নজরদারি থাকলে চাঁদাবাজরা চাপে থাকবে।চরাঞ্চলের সার্বিক আইনশৃঙ্খলার বিষয়ে মুন্সিগঞ্জ সদরথানার অফিসার ইনচার্জ শহিদুল ইসলাম কোন মন্তব্য করতে রাজি হননি।

ইউনাইটেড প্রেস অব বাংলাদেশ

One Response

Write a Comment»
  1. I think OC munshiganj thana involve this chadabagi.so he will encourage it , instead to stop it.