পদ্মায় নৌকাডুবিতে নিখোঁজ তিন যাত্রীর সন্ধান মেলেনি

মুন্সীগঞ্জের লৌহজংয়ে পদ্মা নদীতে কার্গোর ধাক্কায় নৌকাডুবিতে তিন যাত্রী নিখোঁজের ২৪ ঘণ্টা পেরিয়ে গেলেও তাদের সন্ধান মেলেনি। শনিবার সকাল থেকে লৌহজং থানা পুলিশ নিখোঁজ যাত্রীদের সন্ধানে পদ্মা নদীতে তল্লাশি শুরু করেছে।

এদিকে ২৪ ঘণ্টায়ও নিখোঁজ যাত্রী দুলাল (৩২) ইতি আক্তার (১৪) ও শারমিন আক্তারের (১৬) কোনো সন্ধান না পাওয়ায় ধারণা করা হচ্ছে, পদ্মার তলিয়ে গিয়ে স্রোতের তোড়ে ভেসে গেছেন তারা।


অন্যদিকে, সারবোঝাই ঘাতক কার্গোসহ তিনজনকে আটক করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় শুক্রবার দিবাগত মধ্যরাতে লৌহজং থানায় একটি মামলা রুজু করা হয়েছে।

লৌহজং থানা উপপরিদর্শক (এসআই) মিন্টু মন্ডল বাংলানিউজকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

উল্লেখ্য, শুক্রবার দুপুরে যাত্রীবাহী পালতোলা একটি নৌকা গাউদিয়া এলাকা থেকে মূল নদীর চরের দিকে যাওয়ার সময় সারবোঝাই একটি কার্গোর ধাক্কায় তলিয়ে যায়। নৌকার চালক ও স্বপন নামে এক যাত্রী সাঁতরে তীরে উঠতে সক্ষম হলেও দুলাল, ইতি ও শারমিন আক্তার নিখোঁজ রয়েছেন।

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর
================

লৌহজংয়ে পদ্মায় কার্গোর ধাক্কায় নৌকাডুবিতে ৩ যাত্রী নিখোঁজ

মুন্সীগঞ্জের লৌহজংয়ের পদ্মায় কার্গোর ধাক্কায় নৌকাডুবিতে নিখোঁজ ৩ যাত্রীর সন্ধান পাওয়া যায়নি। শুক্রবার দুপুরে সারবোঝাই একটি কার্গোর ধাক্কায় যাত্রীবাহী একটি নৌকা ডুবে গেলে শনিবার বিকেল সাড়ে ৪টা পর্যন্ত তিন যাত্রী নিখোঁজ রয়েছেন। নিখোঁজ যাত্রীরা হলেন- দুলাল (৩২), ইতি (২৪) ও শারমিন আক্তার (১৬)। এদিকে সারবোঝাই ঘাতক কার্গোটিসহ ৩জনকে থানা পুলিশ আটক করেছে।


এলাকাবাসী জানায়, শুক্রবার দুপুরে যাত্রীবাহী পালতোলা নৌকাটি গাউদিয়া এলাকা থেকে মূল নদীর চরের দিকে যাচ্ছিল। এ সময় সারবোঝাই একটি কার্গোর ধাক্কায় নৌকাটি নদীতে তলিয়ে যায়। এ ঘটনায় নৌকার চালক ও এক যাত্রী সাঁতরে তীরে উঠতে পারলেও শনিবার বিকেল সাড়ে ৪টা পর্যন্ত তিন যাত্রী নিখোঁজ রয়েছেন। লৌহজং থানার এএসআই রফিক জানান, ঘটনার পর স্থানীয় লোকজন নদীতে নেমে ও জাল ফেলে উদ্ধার তৎপরতা চালালেও নিখোঁজদের খুঁজে পাওয়া যায়নি। তবে সারবোঝাই ঘাতক কার্গোটিসহ তিনজনকে থানা পুলিশ আটক করেছে বলে তিনি জানান।

ঢাকা নিউজ এজেন্সি